জাপানে গত কয়েকদিনের টানা বর্ষণে সৃষ্ট বন্যা ও এর ফলে ভূমিধসে অন্তত ৬০ জন প্রাণ হারিয়েছে। নিখোঁজ রয়েছে আরো অর্ধশতাধিক মানুষ। এখনো দেশটির পশ্চিম ও মধ্য অঞ্চলে টানা বর্ষণ চলছে বলে জানা গেছে।

প্রবল বর্ষণে সৃষ্ট বন্যায় এ দুটি অঞ্চলের ১৬ লাখেরও বেশি মানুষ গৃহহীন হয়ে পড়েছে। জাপানের আবহাওয়া বিভাগ পশ্চিমের প্রধান দ্বীপ হনশুর চারটি এলাকার জন্য বিশেষ সতর্কতা জারি করেছে।

বর্ষণকে ‘ঐতিহাসিক’ আখ্যা দিয়ে এসব এলাকার বাসিন্দাদের ভূমিধস, নদীর পানির উচ্চতা বৃদ্ধি ও তীব্র বাতাসের ব্যাপারে সতর্ক থাকতে অনুরোধ জানানো হয়েছে। আবহাওয়া বিভাগ আরও জানিয়েছে, শুক্র ও শনিবার সকালের মধ্যে টোকিও থেকে ৬০০ কিলোমিটার দূরের এলাকা শিকোকু দ্বীপের মতোইয়ামা শহরে ৫৮৩ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে।

চলছে উদ্ধার তৎপরতা

এলাকাগুলোতে রোববারও প্রবল বর্ষণ হতে পারে। হিরোশিমার পশ্চিমাঞ্চলীয় একটি শহরে সেতু থেকে নদীতে পড়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। কিয়োটোর ৫৬ কিলোমিটার পূর্বের শহর তাকাশিমায় আবর্জনা সরানোর সময় খালে ভেসে গিয়ে ৭৭ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ মারা গেছেন। এ ছাড়া ইহিম, হিরোশিমা ও ইমাগুচিতে ভূমিধসে আহত হয়ে গুরুতর অবস্থায় আরও পাঁচ ব্যক্তি।

বন্যা ও আরও ভূমিধসের আশঙ্কায় শনিবার সকালে ১৬ লাখেরও বেশি মানুষকে ঘরবাড়ি ছেড়ে সরে যাওয়ার আদেশ দেয়া হয়েছে। আরও ভূমিধস হতে পারে সেই আশঙ্কায় আরও ৩১ লাখ লোককে অন্যত্র সরে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছে অগ্নিনির্বাপন ও দুর্যোগ প্রশমন বিভাগ। আটকে পড়া, আহত ও নিহতদের উদ্ধারে প্রায় ৪৮ হাজার পুলিশ, ফায়ার ফাইটার ও স্বেচ্ছাসেবক কাজ করছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here