শেষ মুহূর্তে বাতিল হয়ে গেল জনপ্রিয় বলিউড অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তীর ছেলে মহাক্ষয়ের ওরফে মিমোর বিয়ে! কিছুদিন আগেই এক তরুণীকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ধর্ষণ ও প্রতারণার অভিযোগ ওঠে মিমোর বিরুদ্ধে। কিন্তু তা সত্ত্বেও বিয়ে বাতিল করেননি কনে মদালসা শর্মার পরিবার।

কনের মা স্পষ্ট জানিয়েছিলেন, পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী বিয়েটা হবে। সেই মতো গতকাল শনিবার বিয়ের আসরও বসেছিল তামিলনাড়ুর নীলগিরি জেলার উধগমন্ডলমের একটি হোটেলে। বিলাসবহুল এই হোটেলটি মিঠুনেরই। সূত্রের খবর, আজ সেই হোটেলেই তদন্তকারীরা উপস্থিত হওয়ার পরেই বিয়ে বাতিল করে দিয়ে ফিরে গিয়েছেন কনেপক্ষ।

মিমোর বিরুদ্ধে অভিযোগ, বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে চার বছর ধরে এক তরুণীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক রেখেছিলেন তিনি। একটি সূত্র আবার বলছে, অভিযোগকারিণী এক ভোজপুরি অভিনেত্রী। তার অভিযোগ, পরে তিনি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে তাকে ওষুধ খাইয়ে গর্ভপাত করান মিঠুনের স্ত্রী যোগিতা বালি। ছেলের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার হুমকিও দেন বলে অভিযোগ।

অভিযোগকারিণী জানিয়েছেন, এর পরেই ভয়ে মুম্বই থেকে দিল্লি চলে যান তিনি, পরে রোহিণী থানায় মিমোদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন।

এই সপ্তাহের শুরুতে দিল্লির এক আদালত জানায়, মিমো ও যোগিতার বিরুদ্ধে এফআইআর করার মতো যথেষ্ট প্রমাণ আছে। বৃহস্পতিবার গ্রেফতারি এড়াতে বম্বে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন মিমো ও তার মা। সেই আর্জি খারিজ করে বিচারপতি জানান, এ নিয়ে তারা দিল্লির সংশ্লিষ্ট আদালতে গিয়ে আবেদন জানাতে পারেন। পরে শনিবার দিল্লির আদালত এক লাখ রুপির ব্যক্তিগত বন্ডে মা-ছেলের জামিন দেয়।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here