ফিনল্যান্ডে সোনকাজারভি শহরে আয়োজিত স্ত্রীকে কাঁধে নিয়ে দৌড় প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন লিথুনিয়ার এক দম্পতি। শনিবার অনুষ্ঠিত হওয়া এ চ্যাম্পিয়নশিপে ৫২ জুটিকে পেছনে ফেলে চ্যাম্পিয়ন হন ভিতোউতাস কিরক্লিয়াওসকাস ও তার স্ত্রী নিরিনগা কিরক্লিয়াওসকিনি।

স্ত্রীকে নিয়ে দৌড় বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের এটি ছিল ২৩ তম আসর। যা দেখতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে কয়েক হাজার দর্শক ফিনল্যান্ডে হাজির হন।

আয়োজকরা জানিয়েছেন, এবারের চ্যাম্পিয়নশিপে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, সুইডেন এবং এস্তোনিয়াসহগ ১৩টি দেশের ৫৩টি জুটি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে।

চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর লিথুনিয়া দম্পতি উচ্ছাস প্রকাশ করেন। এসময় ভিতোউতাস কিরক্লিয়াওসকাস বলেন, ‘সে আমার স্ত্রী, এবং সে সবচেয়ে সেরা।’

দৌড়ের ফিনিস লাইনে লিথুনিয়ান দম্পতির উল্লাস

স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ভালোবাসা ও একে অপরের প্রতি আকর্ষণ বাড়াতে ১৯৯২ সাল থেকে ফিনল্যান্ডের রাজধানী হেলিসিংকির ৫০০ কিলোমিটার উত্তরে সোনাকাজারভিতে এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

স্ত্রীকে কাঁধে করে ২৫৩ দশমেক ৫ মিটার দূরত্ব পাড়ি দিতে হয়। পথে পানিভর্তি গর্তসহ নানা ধরনের বাধা থাকে। প্রতিযোগিতার নিয়ম অনুযায়ী, নিজের বউ ছাড়াও প্রতিবেশীর বউ বা বাগদত্তাকেও কাঁধে নিয়ে দৌড়োনো যেতে পারে।

প্রতিবেশীর বা নিজের, যারই হোক না কেন- বউয়ের ওজন হতে হবে ন্যূনতম ৪৯ কেজি। যদি তার চেয়ে ওজন কম হয় তবে বউয়ের কাঁধে দিয়ে দেয়া হয় ভারী রুকস্যাক। এছাড়া সঙ্গীনির বয়স হতে হবে ১৭ বছরের বেশি।

এই খেলাটি শুরু হয়েছিল ১৮০০ সালে৷ প্রচলিত রয়েছে এলাকার রসভো রনকাইন নামের এক দুষ্কৃতী স্থানীয় মহিলাদের অপহরণ করতেন৷ এরপর ঘাড়ে করে নিয়ে পালিয়ে যেত সে৷ এ ঘটনা থেকেই এমন প্রতিযোগিতার আয়োজন করে আসছে আয়োজকরা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here