বলেউড সেলেব্রেটিদের ছায়াসঙ্গী তারা। ২৪ ঘণ্টা তারকাদের নিরাপত্তার দায়িত্ব নিজেদের কাঁধে তুলে নিয়েছেন। বি-টাউনের এই দেহরক্ষীরা জনপ্রিয়তায় একজন সেলিব্রিটির থেকে কোনও অংশে কম নয়। তাদের বেতনও বেশ ঈর্ষণীয়। আমির খান থেকে সালমান-বলিউড তারকাদের দেহরক্ষীদের বেতন শুনলে চোখ কপালে উঠবে।

শাহরুখ ও তার দেহরক্ষী রবি সিং

শাহরুখ খান: বলিউড বাদশার দেহরক্ষার দায়িত্ব সামলান রবি সিং। শাহরুখ ছাড়াও ক্যাটরিনাসহ অনেক বলি তারকার নিরাপত্তার গুরুদায়িত্বও পালন করেছেন রবি। দেশে কোনও আন্তর্জাতিক তারকা এলে তাদের নিরাপত্তার দায়িত্ব যায় রবির উপরেই। প্যারিস হিলটনসহ অনেক সেলিব্রিটির দেহরক্ষী হিসেবে কাজ করেছেন তিনি। রবিকে বছরে আড়াই কোটি টাকা বেতন দেন শাহরুখ।

আমির খানের সঙ্গে যুবরাজ গোরপাড়ে

আমির খান: ‘মিস্টার পারফেকশনিস্ট’ চরিত্র বাছাইয়ের ব্যাপারে যেমন খুঁতখুঁতে দেহরক্ষী বাছাইয়ের ব্যাপারেও তেমনি সচেতন। গত দু’বছর ধরে আমিরের নিরাপত্তার দায়িত্ব রয়েছে ‘এস সিকিউরিটিজ অ্যান্ড সার্ভিসেস লিমিটেড’ নামে একটি সংস্থার উপর। ওই সংস্থা থেকেই আমিরের দেহরক্ষীর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে যুবরাজ গোরপাড়ের উপর। বলিউডে বেশ জনপ্রিয় যুবরাজ। তার বেতন বছরে দুই কোটি টাকা।

সালমান খানের সঙ্গে শেরা

সালমান খান: ভাইজানের ছায়াসঙ্গী শেরা। তাকে একপ্রকার অন্ধের মতোই ভরসা করেন সালমান। কৃষ্ণসার হত্যা মামলায় সালমানের সাজা ঘোষণার পর জোধপুর জেলে তাকে নিয়ে যাওয়ার সময়েও সর্বক্ষণ ভাইজানের আশপাশেই দেখা গিয়েছে শেরাকে। এমনকি ভারতে কোনও আন্তর্জাতিক তারকা এলেও ডাক পড়ে শেরার। বছরে তাকে ২ কোটি টাকা দেন সালমান।

অমিতাভ ও জিতেন্দ্র শিন্ডে

অমিতাভ বচ্চন: বিগ বিকে রক্ষার গুরুদায়িত্ব পালন করেন জিতেন্দ্র শিন্ডে। নিজস্ব বডিগার্ড এজেন্সির ব্যবসা থাকলেও অমিতাভ বচ্চনের দেহরক্ষীর কাজটি নিজের কাঁধেই রেখেছেন তিনি। জিতেন্দ্রর বেতন বছরে দেড় কোটি টাকার কাছাকাছি।

অক্ষয় ও শ্রেসে থেলে

অক্ষয় কুমার: বলিউডের খিলাড়ি অক্ষয় কুমারের স্টান্ট এবং মার্শাল আর্টের দক্ষতা কারও অজানা নয়। তাই অভিনেতার নিরাপত্তার দায়িত্বও দেওয়া হয়েছে তেমনই একজন দক্ষ লোকের উপরেই। শ্রেসে থেলে শুধু অক্ষয় নয় তাঁর ছেলে আরভের নিরাপত্তার দায়িত্বেও রয়েছেন। শ্রেসে ওরফে শ্রির স্মরণশক্তি নাকি সাঙ্ঘাতিক। বছরে দেড় কোটির কাছাকাছি বেতন পান তিনি।

দিপিকার সঙ্গে জালাল

দিপিকা পাড়ুকোন: দিপিকার দেহরক্ষীর দায়িত্ব সামলান জালাল। এক সাক্ষাৎকারে দিপিকা জানিয়েছিলেন, জালাল শুধু তার দেহরক্ষীই নন, তাকে ভাইয়ের মতো দেখেন তিনি। প্রতি বছর রাখিও বাঁধেন। বেতনও দেন মনের মতোই। নায়িকার নিরাপত্তার গুরুদায়িত্ব সামলানোর জন্য বছরে ৮০ লক্ষ থেকে এক কোটি টাকা বেতন পান জালাল।

সানির সঙ্গে ইউসুফ ইব্রাহিম

সানি লিওন: নিজের নিরাপত্তার দায়িত্ব ইউসুফ ইব্রাহিমের উপর দিয়েই নিশ্চিন্ত রয়েছেন সানি লিওন। নায়িকা জানিয়েছেন, একজন অভিনেতা বা অভিনেত্রীর নিরাপত্তার দিকটি প্রাধান্য দেওয়া উচিত এবং সেই কাজ খুব ভাল করেই পালন করেন ইউসুফ। তার বেতন বছরে কোটি টাকার কাছাকাছি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here