আলোচিত ও বিতর্কিত সালাফিপন্থি ইসলামি ব্যক্তিত্ব জাকির নায়েককে বাংলাদেশে জায়গা দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম। শনিবার দুপুরে দিল্লির গবেষণা প্রতিষ্ঠান অবজার্ভার রিসার্চ ফাউন্ডেশনে এক মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

এইচ টি ইমাম বলেন, ‘বাংলাদেশে তার ঠাঁই নেই। এ ব্যাপারে ভারতের সঙ্গে সহযোগিতাপূর্ণ মনোভাব নিয়ে কাজ করবে বাংলাদেশ।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা পুরোপুরিভাবে ভারতকে সহযোগিতা দেব। সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতিতে সংকল্পবদ্ধ সরকার। আমাদের প্রতিবেশী দেশগুলোর কাছে শত্রুভাবাপন্ন-এমন কাউকে বাংলাদেশের মাটি ব্যবহার করতে দেওয়া হবে না।’

২০১৬ সালের জুলাইয়ে ঢাকার গুলশানে হলি আর্টিসান রেস্তোরাঁয় যে জঙ্গিরা হামলা করেছিল তাদের কয়েকজন জাকির নায়েকের প্রচারে প্রভাবিত হয়েছিল বলে অভিযোগ ওঠে। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মধ্যে বিভেদের উস্কানি দেওয়ারও অভিযোগ রয়েছে।

একই বছরের নভেম্বরে ইউএপিএ এবং ফৌজদারি দণ্ডবিধির নানা ধারায় জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে ভারতের জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা (এনআইএ)। তার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশনকেও নিষিদ্ধ করা হয়। তারপরেই ভারত ছেড়ে মালয়েশিয়ায় পাড়ি জমান ওই ধর্মীয় নেতা।

চলতি মাসের গোড়ার দিকে প্রত্যর্পণ চুক্তির আওতায় জাকির নায়েককে তাদের হাতে তুলে দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছিল দিল্লি। কিন্তু গত শুক্রবার মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ তার দেশ জাকির নায়েককে ভারতের হাতে তুলে দেবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here