করলার উপকারিতা জানা সত্ত্বেও শুধুমাত্র তিক্ততার জন্য অনেকেই এ সবজিটি খেতে পছন্দ করেন না। বিশেষ করে বাচ্চাদের করলা খাওয়ানো আরও সমস্যার।

অথচ করলার গুণ প্রচুর। রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে করলা। এছাড়াও এর আরও গুণ আছে। লিভার পরিষ্কার রাখে, ওজন কমাতেও সাহায্য করে। যে ভাবেই হোক খাওয়াতে হবে তাই অনেকে করলার পদে বেশি করে চিনি মিশিয়ে দেন। কিন্তু এ ভাবে করলা রান্নার কোনও মানে হয় না।

যে বা যাদের চিবিয়ে খেতে অসুবিধা হয়, তারা করলা দিয়ে বানিয়ে ফেলুন চা। তবে ভাববেন না যে, করলা চা মিষ্টি হবে। অবশ্য খাওয়া অনেকটা সহজ। এক নিশ্বাসে এক কাপ তেতো পানি গিলে ফেললেই হল। করলা ভাজা বা করলার অন্যান্য পদের সমান উপকারই আপনি পাবেন এই চা থেকে।

কী ভাবে বানাবেন? পানি ফুটে এলে এর মধ্যে পাতলা করে কাটা করলার টুকরো দিয়ে দিন। ১০ থেকে ১৫ মিনিট পানি ফুটতে দিন। করলার সমস্ত গুণ জলে চলে আসবে। তারপর নামিয়ে নিন। রোজ ডায়েটে রাখুন এক কাপ করলা চা। খেতে অসুবিধা হলে প্রয়োজনে অল্প মধুও মেশাতে পারেন।

করলার টুকরো ছাড়াও করলা পাতা দিয়েও একই ভাবে এই চা বানানো যায়। ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণ, লিভার পরিষ্কার রাখা ছাড়াও রক্তে কোলেস্টেরল কমায়, চোখ ভাল রাখে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে এই চা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here