নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদীতে লঞ্চের ধাক্কায় ট্রলার থেকে পড়ে নিখোঁজ ৫ যাত্রীর মধ্যে ৪ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আজ সকাল থেকে দ্বিতীয় দিনের মতো শীতলক্ষ্যায় তল্লাশী শুরু করে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ডুবুরি দল। পরে সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত ফায়ার ঘাট থেকে কেরোসিন ঘাট এলাকায় অনুসন্ধান চালিয়ে ৪ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

যে চার জনের লাশ পাওয়া গেছে তারা হলেন- বন্দর উপজেলার ইসলামপুর গ্রামের রমিজ উদ্দিনের ছেলে ইমন (২৪), একই উপজেলার মদনগঞ্জের কালা চাঁন মিয়ার ছেলে দ্বীন মোহাম্মদ (২৪), শান্তি নগরের ফকির চাঁনের ছেলে জনি (২৩) ও আরেকজন অজ্ঞাত।

এ ঘটনায় এখনো নিখোঁজ রয়েছেন সুজন (১৯) ও জনি (২২)। তারা দুজনই বন্দর উপজেলার মদনগঞ্জ শান্তিনগর এলাকার বাসিন্দা।

নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশনের ওয়্যার হাউজ পরিদর্শক রনজিৎ জানান, রোববার রাত সোয়া ৯টায় শহরের সেন্ট্রাল খেয়াঘাট থেকে ১০০ থেকে ১৫০ জন যাত্রী নিয়ে মদনগঞ্জ ঘাটের উদ্দেশ্যে যাওয়ার সময় ট্রলারটি মোড় ঘুরাতে গিয়ে ঘাটের পাশে আগে থেকে থামিয়ে রাখা লঞ্চের সঙ্গে ধাক্কা খায়।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here