ডুবুরি আর উদ্ধারকারীদের অক্লান্ত পরিশ্রমের পর গতকাল থাইল্যান্ডের উত্তরাঞ্চলে একটি দুর্গম গুহায় আটকে পড়া ১২ ফুটবলার ও তাদের কোচকে অবশেষে উদ্ধার করা হয়েছে। গত ২৩ জুন কোচের সঙ্গে ঘুরতে গিয়ে দুর্গম এক গুহায় আটকা পড়েছিল ওই কিশোররা। তারও নয় দিন পর এক সপ্তাহ আগে এক ব্রিটিশ উদ্ধারকারী ডুবুরি গুহার প্রবেশমুখ থেকে চার কিলোমিটার ভেতরে তাদের সন্ধান পায়।

কিন্তু সন্ধান পাওয়ার আগে গুহার সেই ভয়ানক অন্ধকারে এতগুলো মানুষ কী খেয়ে বেঁচেছিল তা জানতে অনেকেই কৌতুহল প্রকাশ করেছেন। অনেকেই ধারণা করেছেন, গুহায় হয়তো কোনো ধরনের প্রাণী খেয়ে তারা বেঁচে ছিল।

বস্তুত এমন কিছুই ঘটেনি। আসলে ক্ষুদে ফুটবলারদের একজন পিরাপাত সোমপিয়াংজাই (১৭)। যেদিন তারা গুহায় আটকে পড়ে অর্থাৎ ২৩ জুন ছিল তার জন্মদিন। তার জন্মদিন উদযাপনের জন্য সবাই যে খাবারগুলো এনেছিল, সেগুলোই তাদের এতোদিন টিকে থাকতে সাহায্য করেছে।

উদ্ধারকারীদের মতে, দলের কোচ সবচেয়ে দুর্বল অবস্থায় আছেন। কারণ তিনি বার বার খাবার খেতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। তার পরিবর্তে সেগুলো ওই কিশোরদের খেতে বলেছেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here