প্রথমবারের মতো ফাইনালে উঠার রঙীন স্বপ্ন ক্রোয়েশিয়ার। অন্যদিকে ইংল্যান্ড ঘুচাতে চায় ৫২ বছরের অতৃপ্তি। রাশিয়া বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে আজ মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড ও ক্রোয়েশিয়া। তার আগে দেখে নেয়া যাক দুই দলের পরিসংখ্যান।

# বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো মুখোমুখি হতে যাচ্ছে ইংল্যান্ড ও ক্রোয়েশিয়া। আন্তর্জাতিক কোনো টুর্নামেন্টে দুই দলের একমাত্র খোটা হয়েছিল ২০০৪ সালের ইউরোয়। সেবার ৪-২ গোলে ইংলিশদের পরাস্ত করে ক্রোয়াটরা।

# সব মিলিয়ে দুই দলের খো হয়েছে সাতবার। চার জয় নিয়ে এগিয়ে আছে ইংল্যান্ড। ক্রোয়েশিয়ার জয় দুটি। ১৯৯৬ সালে দুই দলের প্রথম ম্যাচটি ছিল গোলশূন্য ড্র।

# ১৯৯০ সালের পর প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের শেষ চারে ইংল্যান্ড। সেবার সেমি-ফাইনালে জার্মানির কাছে টাইব্রেকারে হেরেছিল তারা।

# আন্তর্জাতিক ফুটবলে ইংরেজদের একমাত্র শিরোপা ১৯৬৬ সালের বিশ্বকাপ জয় এসেছিল তাদের ঘরের মাঠেই।

# ১৯৯১ সালে যুগোস্লোভিয়া ভেঙে যাওয়ার পর ছয়টি বিশ্বকাপের পাঁচটিতেই খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে ক্রোয়েশিয়া। ১৯৯৮ সালে বিশ্ব মঞ্চে নিজেদের অভিষেকেই শেষ চারে পা রেখেছিল তারা। ঐ আসরের চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সের কাছে সেমি-ফাইনালে হারের পর তৃতীয় স্থান নির্ধারণী খেলায় জয় পায় নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে।

# চলতি রাশিয়া বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত অপরাজিত ক্রোয়েশিয়া। ‘ডি’ গ্রুপে তিন ম্যাচই জিতে পুরো নয় পয়েন্ট নিয়ে নক আউট পর্বে পা রাখে দলটি। প্রতিপক্ষের জালে সাতবার বল জড়ানোর বিপরীতে নিজেরা হজম করেছে মোটে একটি।

# অন্যদিকে গ্রুপ রানার্সআপ হয়ে নক আউট পর্বে ওঠা ইংল্যান্ড বেলজিয়ামের বিপক্ষে গ্রুপে নিজেদের শেষ ম্যাচে ১-০ গোলে হারে।

# দুই গোল করে চলতি আসরে ক্রোয়েশিয়ার সেরা গোলাতা অধিনায়ক লুকা মডরিচ।

# চলতি টুর্নামেন্টে ইংল্যান্ডের করা ১১টি গোলের আটটিই এসেছে পেনাল্টিসহ সেট পিস থেকে। এক বিশ্বকাপে সেট পিস থেকে এর চেয়ে বেশি গোল করার রেকর্ড নেই কোনো লের। ১৯৬৬ সালে পর্তুগালও সেট পিস থেকে আটটি গোল করেছিল। রেকর্ডটা এককভাবে নিজেরে করে নেওয়ার সুযোগ রয়েছে কেইন-রাহিম স্টার্লিংদের।

# ১৯৬৬ সালে নিজেদের একমাত্র বিশ্বকাপ জয়ের আসরে সর্বোচ্চ ১১টি গোল করেছিল ইংল্যান্ড। এরই মধ্যে বিশ্বকাপের এক আসরে নিজেদের সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলেছে গ্যারেথ সাউথগেটের শিষ্যরা। এবার অপেক্ষা নতুন রেকর্ডের।

# ইংল্যান্ডের হয়ে খেলা নিজের শেষ ৩০টি ম্যাচে হারের মুখ দেখেননি মিডফিল্ডার জর্ডান হেন্ডারসন। যে কোনো ইংলিশ খেলোয়াড়ের সবচেয়ে বেশি ম্যাচে অপরাজিত থাকার রেকর্ড এটি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here