কোটা সংস্কারের পক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নিপীড়নবিরোধী শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন চলাকালে তাদের ওপর হামলা চালিয়েছে ছাত্রলীগ। এ সময় বেশ কয়েকজন আন্দোলনকারীকে পিটিয়ে আহত করে ছাত্রলীগ কর্মীরা। আজ দুপুর সোয়া ১২টার দিকে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি অনুসারে কোটা সংস্কারের পক্ষে সাধারণ শিক্ষার্থীর ব্যানারে বেলা সাড়ে ১১টায় শহীদ মিনারে মানববন্ধন শুরু হয়। এতে সমর্থন জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরাও অংশ নেন। কর্মসূচিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষক, কোটা সংস্কার আন্দোলনকারী শিক্ষকদের অভিভাবক ও বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

পাশেই গুজবে কান দেবেন না স্লোগানে ছাত্রলীগ কর্মীরাও মানববন্ধন শুরু করে। শিক্ষকরা বক্তব্য দেয়ার সময় তারা উসকানিমূলক বক্তব্য দেয়। পরে দুপক্ষই মিছিল নিয়ে শহীদ মিনার থেকে টিএসসির দিকে রওনা দেয়। উভয় মিছিল বঙ্গবন্ধু টাওয়ারের সামনে আসলে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগ হামলা করে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক ড. ফাহমিদুল হক বলেন, শহীদ মিনারে সাধারণ শিক্ষার্থীদের কর্মসূচি ছিল। সেখানে ছাত্রলীগ অবস্থান নেয়। তারা মাইকে শিক্ষকদের নিয়ে কটূক্তি করে। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন নিপীড়নবিরোধী শিক্ষকদের দোষারোপ করছে।

তিনি বলেন, নিপীড়নবিরোধী শিক্ষার্থীরা বঙ্গবন্ধু টাওয়ারের সামনে আসলে ছাত্রলীগ হামলা চালায়।শিক্ষার্থী রাফিয়া তামান্না বলেন, প্রথম থেকেই তারা আমাদের মানববন্ধনে বন্ধনে বাধা দেয়ার চেষ্টা করেছে। পরে আমরা মিছিল নিয়ে যাওয়ার সময় হামলা চালায়। তারা আমাদের শিক্ষকদেরও অপমান করেছে।দুই পক্ষের কর্মসূচিতে চলার সময় আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর কোনো সদস্য সেখানে ছিলেন না। কিন্তু মারধরের শিক্ষার্থীরা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফের জড়ো হতে শুরু করলে প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা এসে তাদের উঠে যেতে বলেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here