হতে পারে সচেতন ভাবে, আবার অজ্ঞাতেও। তারপরও মস্কোয় গতকাল বিশ্বকাপ ফাইনালের পুরস্কার বিতরণীতে তুমুল বৃষ্টির মধ্যে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাকরন ও ক্রোয়েশিয়ার প্রেসিডেন্ট কলিনদা গ্রাবার কিতারোভিচকে কাকভেজা করিয়ে তুমুল সমালোচনার মুখে পড়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

গতকালের ওই পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে অতিথি দুই রাষ্ট্রপ্রধান যখন মুষলধারে বৃষ্টিতে ভিজছিলেন তখন একজন নিরাপত্তা কর্মী শুধু পুতিনের মাথার উপরেই ছাতা ধরে ছিলেন। আর তারপরই আয়োজক রাশিয়ার রাষ্ট্রপ্রধানের সৌজন্যবোধ নিয়ে টুইটার-ফেসবুকে আছড়ে পড়েছে শ্লেষ, কটাক্ষ।

এ কি শুধুই আয়োজনের খামতি? যে দেশ কার্যত মসৃন ভাবে (ফাইনাল ম্যাচে রুশ নারীবাদী সংগঠন ‘পুসি রায়ট’ এর চার কর্মীর মাঠে ঢুকে পড়া বাদ দিলে) বিশ্বকাপ আয়োজন করেছে, সেখানে সামান্য বৃষ্টির জন্য প্রস্তুতি থাকবে না? এ ভাবেই সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন ক্ষেত্রের বিখ্যাত ব্যক্তিত্বরা পর্যন্ত প্রশ্ন তুলেছেন আয়োজনের ত্রুটি-বিচ্যুতি নিয়ে। এবং অবশ্যই পুতিনের সৌজন্যবোধ নিয়ে।

ফিফা কর্মকর্তাদের যদি বাদও দেওয়া যায়, অন্তত দুই রাষ্ট্রপ্রধানের জন্যও ছাতা জুটল না? আর যখন জুটলই না, তখন আয়োজক হয়ে পুতিনই বা কেন নির্লজ্জের মতো ছাতা মাথায় দাঁড়িয়ে থাকলেন? তিনি নিজেও তো ছাতা সরিয়ে সবার সঙ্গে ভিজতে পারতেন। টুইটার-ফেসবুকে ঘুরছে এই সব প্রশ্ন। অনেকে আবার ‘ক্ষমতার দম্ভ’ বলেও খোঁটা দিয়েছেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here