যে কোনো খেলাতেই আবহাওয়াটা একটা ফ্যাক্টর। ফুটবল বিশ্বকাপে সেটা আরও বেশি ভূমিকা রাখে। এবারের আসর বসার আগে অনেক ফুটবল বিশেষজ্ঞই ভবিষ্যৎবাণী দিয়েছিলেন, শীতপ্রধান রাশিয়ার আবহাওয়া প্রভাব ফেলতে পারে বিশ্বকাপে। ইউরোপের বাইরের দেশগুলো বিশেষ করে আফ্রিকা ও এশিয়ার দল এই তীব্র ঠা-ায় কতোটা মানিয়ে নিতে পারবে সেটা নিয়েও ছিল প্রশ্ন।

সব হিসাব-নিকাশ কষে তারা জানিয়েছিলেন, এবারও ইউরোপেই থাকছে ট্রফি। হয়েছেও তাই। এদিকে ২০২২ সালের কাতারে হতে যাওয়া বিশ্বকাপে আবহাওয়ার প্রভাব নিয়েও চলছে যথেষ্ট আলোচনা-সমালোচনা। শেটির প্রচণ্ড গরম ফুটবলের উপযোগী কিনা, সে প্রশ্নও করছেন অনেকেই। ফিফার মাথায় অবশ্য সে বিষয়টি রয়েছে। তাই তো নিয়ম ভেঙে অন্য মৌসুমে আয়োজন করা হচ্ছে কাতার বিশ্বকাপ। মূলত জুন থেকে জুলাইয়ের মধ্যেই বসে ফুটবল বিশ্বকাপের আসর। কাতারে এ সময়টায় প্রচুর গরম থাকে। সে কারণে বছরের শেষ দিকে ২১ নভেম্বর শুরু হবে ২২তম আসর এবং শেষ হবে ১৮ ডিসেম্বর। বিশ্বকাপ মোট ২৮ দিনের।

এদিকে রাশিয়া বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার আগেই কাতার মিশন শুরু করে দিয়েছে অনেকগুলো দেশ। এর মধ্যে ব্রাজিল অন্যতম। কোয়ার্টার ফাইনালে তুলনামূলক বেলজিয়ামের কাছে হেরে বিশ্বকাপ মিশন শেষ করেন নেইমাররা। এক সপ্তাহ আগেই দেশে ফিরেছেন কুটিনহো, পাউলিনহোরা। তিতের কোচিংয়ে বিশ্বকাপ জিততে না পারলেও নজর কেড়েছে তাদের খেলা। তাই কোচ হিসেবে তাকেই কাজ চালিয়ে যাওয়ার প্রস্তাব দিয়েছে দেশটির ফুটবল ফেডারেশন।

দুঙ্গার ব্রাজিলের চেয়ে তিতের দল অনেক উন্নতি করেছে, তা বিশ্ববাসী দেখেছে। সে কারণেই হয়তো এ প্রথম কোনো অসফল কোচকে ছাঁটাই না করে রেখে লি দেশটির ফুটবল কর্তারা। উল্টো তিতেকে আরও চার বছর অর্থাৎ কাতার বিশ্বকাপ পর্যন্ত কোচ থাকার প্রস্তাব দিয়েছেন তারা। ব্রাজিল ফুটবল ফেডারেশন মনে করছে, স্কিলের সঙ্গে পাওয়ার মিশিয়ে যদি কেউ কাপ এনে দিতে পারেন, সেটা কেবল তিতেই। ৫৬ বছর বয়সী এই গুরু অবশ্য নিজের সিদ্ধান্ত এখনও জানাননি। আপাতত পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে চান। শুধু বলেছেন, ‘আমি ভবিষ্যৎ নিয়ে এখনই কিছু বলব না।’

ইংল্যান্ডের কাতার মিশন শুরু হয়েছে অবশ্য রাশিয়া বিশ্বকাপেরও আগে। নানা বিতর্কিত ঘটনা ঘটিয়ে ঘরের মাটিতে সেই ১৯৬৬ সালে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ব্রিটিশরা। মাঝে ১৯৯০ সালে একবার সেমিফাইনালে ওঠা। সেই খরা কাটিয়ে উঠতে জুনিয়র স্তর থেকে বাছাই ও প্রশিক্ষণের মধ্য দিয়ে ১০ বছরের মাস্টারপ্ল্যান করেছে তারা। ইংল্যান্ডের ফুটবল ফেডারেশনের সেই প্রজেক্টের নাম ‘মিশন ২০২২’ বা ‘কাতার মিশন’। সংগঠনের একটি ঘড়িতে সময় স্থির। কাতার বিশ্বকাপের ফাইনাল শেষ হওয়ার সময়টা লেগে রয়েছে সেখানে। খেলোয়াড়দের মনোবল বাড়াতে দেওয়া হয় আর্মি ট্রেনিং। ফলও এসেছে। গত বছর অনূর্ধ্ব-১৭ ও অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপ তাদের ঘরেই ওঠেছে। তরুণদের নিয়ে সেমিফাইনালে উঠাও কম কিসের। তবে মাস্টারপ্ল্যানের লক্ষ্যমাত্রার চার বছর আগেই দেশকে সাফল্য এনে দিতে পারতেন হ্যারি কেনরা। ব্যক্তিগত তিনি অবশ্য সফল হয়েছেন। ৬ গোল করে তিনি এখনো শীর্ষে। কোনো অঘটন না ঘটলে গোল্ডেন বুট তার হাতেই ওঠছে।

রাশিয়ায় স্পেনের পারফর্মেন্স হতাশ করেছে ফুটবলপ্রেমীদের। ২০১০ সালের চ্যাম্পিয়নরা তলানির ল রাশিয়ার কাছে হেরে দ্বিতীয় পর্ব থেকেই বিায় নেয়। দেশে ফিরে পদত্যাগ করেন কোচ ফার্নান্দো হিয়েরো। তবে জাতীয় লের পাশাপাশি রিয়াল মাদ্রিরে দায়িত্ব নেওয়ায় বিশ্বকাপ শুরুর দুনি আগে বরখাস্ত করা হয় মূল কোচ জুলেন লোপেতেগুইকে। তাই রামোস-কস্তাদের অন্তর্বর্তীকালীন কোচের ভূমিকায় ছিলেন ফার্নান্দো। তার পদত্যাগের পর এক মুহূর্তও সময় নষ্ট করতে চায় না স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন। জাতীয় লের কোচ নিয়োগ ওেয়া হয়েছে লুই এনরিকে।

রাশিয়ার টিকিট না পাওয়া চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইতালিও শুরু করে দিয়েছে কাতার মিশন। গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নেওয়া গতবারের চ্যাম্পিয়ন জার্মানিও কাতার মিশনে পাচ্ছে তরুণদের গতিশীল ফুটবল। চমক দেখানো ক্রেয়েশিয়া ও বেলজিয়ামের মত ফ্রান্সও ২০২২ আসরে ভালো করবে বলেই মনে করেন ফুটবল বিশ্লেষকরা। সেই সঙ্গে পরিচিত আবহাওয়ায় আফ্রিকা ও এশিয়ার দেশগুলোও চমক দেখাতে প্রস্তুতি শুরু করতে বেশি সময় নেবে না।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here