প্রথম দুটি ম্যাচেও তাও কিছুটা প্রতিরোধ গড়েছিল জিম্বাবুয়ে। তবে তৃতীয় ম্যাচে স্বাগতিকরে ব্যাটিং দেয়াল যেন ভেঙে পড়ল তাসের ঘরের মতো। বুলাওয়েতে আগে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ৬৭ রানে অলআউট জিম্বাবুয়ে। জবাবে পাকিস্তান জয়ের বন্দরে পৌছায় ৯.৫ ওভারে। মাত্র এক উইকেট খুইয়ে। ৯ উইকেটের দারুণ জয়ে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের ট্রফি (৩-০) নিশ্চিত করল পাক শিবির।

টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই বাজে অবস্থার মধ্যে ছিল জিম্বাবুয়ে। ৪৩ রানে হারিয়ে বসে সাতটি উইকেট। শেষের দিকে ওয়েলিংটন মাসাকাদজা কিছুটা প্রতিরোধ গড়ায় ৬৭ রানে শেষ হয় জিম্বাবুয়ের ইনিংস। নিজেদের ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে জিম্বাবুয়ের এটি সপ্তম সর্বনিম্ন স্কোর। সর্বোচ্চ ১৬ রান আসে ওপেনার চিভাভার ব্যাটে। অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজা করেন ১০। আর বোলার ওয়েলিংটন মাসাকাদজা থাকেন ১০ রানে অপরাজিত।

পাকিস্তানের হয়ে বল হাতে আগুন ঝড়ান ২৪ বছর বয়সী পেসার ফাহিম আশরাফ। ৮.১ ওভারে ২২ রানে তুলে নেন ক্যারিয়ারের প্রথমবারের মতো পাঁচ উইকেট। এছাড়া জুনাইদ খান দুটি, উসমান, ইয়াসির ও শাদাব খান নেন একটি করে উইকেট।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে প্রথম বলেই আউট হন পাকিস্তানের ওপেনার ইমাম উল হক। তবে জয়ের জন্য বাকি কাজটুকু সেরেছেন ফকর জামান (৪৩) ও বাবর আজমের (১৯) অবিচ্ছিন্ন জুটি।

শুক্রবার বুলাওয়েতে অনুষ্ঠিত হবে সিরিজের চতুর্থ ওয়ানডে ম্যাচ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here