বরগুনা জেলার পাথরঘাটা উপজেলায় বিষখালী নদীর ভাঙনে কবর থেকে বেরিয়ে আসে মৃত মোতাস্বের আলীর অক্ষত লাশ। এতে জনমনে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। কারণ তিনি মারা গেছেন আজ থেকে ৩২ বছর আগে।

সোমবার উপজেলার কাকচিড়া ইউনিয়নের কালীবাড়ী গ্রামের বিষখালী নদীর তীরে এ ঘটনা ঘটে। মৃত্যুকালে মোতাস্বের আলীর বয়স হয়েছিল ৮২ বছর।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ১৯৯৪ সালের প্রথম দিকে কাকচিড়া কালীবাড়ী গ্রামের খলিফা বাড়ির মোতাস্বের আলীর মৃত্যু হয়। তার এক ছেলে ও এক মেয়ে ছিল। মোতাস্বের আলী জীবিত থাকা অবস্থায়ই তার ছেলে মারা যায়। পরবর্তীতে তার মৃত্যুর পর স্ত্রী ও মেয়ে মারা যায়।

মৃত মোতাস্বের আলীর মেয়ের ঘরে এক নাতি আছেন এবং তিনি সৌদিপ্রবাসী। তিনি জীবনের প্রথম দিকে সাধারণ জীবনযাপন করতেন এবং ছারছীনা দরবার শরিফের অনুসারী ছিলেন। পরে বামনা উপজেলার চলাভাংগা দরবার শরিফের পীর মৃত মাওলানা আবদুর রশিদের নৌকার মাঝি হিসেবে দায়িত্বপালন করতেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কাকচিড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন পল্টু জানান, সোমবার স্থানীয় কিছু লোক নদীর তীরে ভাঙা কবরস্থানে সাদা কাপড় দেখতে পেলে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় কবর থেকে মোতাস্বের আলীর লাশটি উদ্ধার করে।

পরে লাশটি দেখার জন্য বহু লোক ভিড় জমায়। বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে সেটি স্থানীয় মোকসেদ আলী মোল্লা বাড়ি জামে মসজিদের পাশে নতুন কবরে দাফন করা হয়।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here