স্বামীর চাইতে প্রায় ২০ বছরের বড় স্ত্রী। সেই সুবাদে তিনি স্বামীর ওপর প্রায়ই অত্যাচার চালাতেন। এ কারণে বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়েছিলেন স্বামী। কিন্তু তাতে রেহাই পাননি। বাড়িতে ধরে এনে বুকে পিস্তল ঠেকিয়ে স্বামীর দুই কানই কেটে দিয়েছেন স্ত্রী।

মঙ্গলবার ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কলকাতা শহরের নারকেলডাঙা নর্থ রোডে এ ঘটনা ঘটে।

সংবাদ প্রতিদিনের এক খবরে বলা হয়, নর্থ রোডের কসাই বস্তি সেকেন্ড লেনের বাসিন্দা মোহাম্মদ তানভীর (২০) দুই বছর আগে মমতাজ বিবিকে (৪০) বিয়ে করেন। বিয়ের পর থেকে শ্বশুর বাড়িতে থাকতেন তানভীর।

প্রতিবেশীদের অভিযোগ, বয়সে ছোট স্বামীর ওপর নিয়মিত অত্যাচার চালাতেন মমতাজ। বাড়ির সঙ্গে কোনো যোগাযোগ ছিল না তানভীরের। তাকে মায়ের সঙ্গে দেখাও করতে দিতেন না মমতাজ। এ কারণে বেশ কয়েকবার বাড়ি থেকে পালিয়ে যান তানভীর। কিন্তু প্রতিবারই তাকে ধরে আনাতেন মমতাজ।

অত্যাচারের মাত্রা এতটাই বেশি ছিল যে, ছেলেকে বাঁচাতে বাড়ি বিক্রি করে পুত্রবধূকে টাকা দিতেও রাজি ছিলেন তানভীরের মা।

কয়েক দিন আগে আবারও বাড়ি থেকে পালিয়ে দক্ষিণ ২৪ পরগনার মল্লিকপুরে চলে যান তানভীর। তার অভিযোগ, এরপর তাকে জোর করে ধরে আনান স্ত্রী। বেধড়ক মারধরের এক পর্যায়ে মঙ্গলবার ভোরে বুকে পিস্তল ঠেকিয়ে তার দুই কান কেটে দেন মমতাজ ও তার বোনেরা। সেখান থেকে কোনো মতে পালালে তাতে রক্তাক্ত অবস্থায় এনআরএস হাসপাতালে নিয়ে যান স্থানীয়রা।

এই ঘটনায় পুলিশের নিষ্ক্রিয় থাকার অভিযোগ করেছে তানভীরের পরিবার। তাদের দাবি, অভিযুক্ত মমতাজ বিবিকে গ্রেফতার করা তো দূর থাক এফআইআরের কপি পর্যন্ত দেয়নি নারকেলডাঙা থানা।

৪০ বছর বয়সী মমতাজ বিবি করার কারণ হিসেবে তানভীর বলেন, তার ভাইয়ের এক বন্ধুই তাকে ফাঁসিয়েছেন। বাধ্য হয়ে মমতাজকে বিয়ে করতে রাজি হয়েছিলেন তিনি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here