পাকিস্তানের কোনো ব্যাটসম্যান ওয়ানডেতে ডাবল সেঞ্চুরি করতে পারেননি। তাদের হয়ে সর্বোচ্চ ইনিংসটির মালিক ছিলেন সাইদ আনোয়ার। ১৯৯৭ সালে ভারতের বিপক্ষে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে ১৯৪ রান করেন।

দীর্ঘ দিন পর তার রেকর্ডটি ভেঙে দিলেন ফখর জামান। পাকিস্তানের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ডাবল সেঞ্চুরি করলেন। শেষ পর্যন্ত ২১০ রান নিয়ে অপরাজিত থাকেন। জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে এই স্কোর করতে ১৫৬ বলে ২৪টি চার পাঁচটি ছক্কা হাঁকান।

ফখর জামানের আগে আরো সাতজন ব্যাটসম্যান ওয়ানডেতে ডাবল সেঞ্চুরি করেন। ২৬৪ রান নিয়ে এই তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন ভারতের রোহিত শর্মা। মোট তিনবার ডাবল সেঞ্চুরি করেন তিনি। বাকি দুটি ইনিংস ২০৯ ও ২০৮ রানের। অপরাজিত ২৩৭ রান নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে মার্টিন গাপটিল। শেবাগ ২১৯ ও গেইল ২১৫ রান করেন। আর ২০০ রান নিয়ে এই তালিকায় আছেন শচীন টেন্ডুলকার।

ফখর জামানের সঙ্গে ইমাম-উল-হকও সমান তালে ব্যাট চালান। তাতে ওয়ানডের ইতিহাসে উদ্বোধনী জুটিতে প্রথমবারের মতো ৩০০ রানের বিশ্ব রেকর্ড গড়েন তারা। ইমাম-উল-হক ১১৩ রানে আউট হলে ৩০৪ রানে তাদের জুটি ভেঙে যায়। তবুও যেকোনো উইকেটে এটি চতুর্থ সর্বোচ্চ রানের জুটি।

ওয়ানডাউনে মাঠে নামা আসিফ আলী মাত্র ২২ বলে ৫০ রান করেন। ফলে পাকিস্তানের মোট সংগ্রহ দাঁড়ায় ৩৯৯ রান। যা ওয়ানডেতে তারে সর্বোচ্চ ইনিংস। এত দিন তাদের সর্বোচ্চ ইনিংস ছিল ৩৮৫ রানের। তবে ওয়ানডের সর্বোচ্চ ইনিংসটির মালিক ইংল্যান্ড। ৪৮১ রান করে রেকর্ডটি ধরে রেখেছে ইংলিশরা।

রেকর্ড গড়া ম্যাচে পাকিস্তান জিতেছে ২৪৪ রানের ব্যবধানে। বড় লক্ষ্যের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে জিম্বাবুয়ে অল আউট ১৫৫ রানে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here