গরু পাচারকারী সন্দেহে ভারতের রাজস্থানের আলওয়ারে শুক্রবার রাতে ফের একজনকে পিটিয়ে হত্যা করেছে স্বঘোষিত গোরক্ষক বাহিনী। গণপিটুনিতে গুরুতর জখম আরও একজন পাঞ্জা লড়ছেন মৃত্যুর সঙ্গে। নিহতের নাম আকবর খান।

পুলিশ সূত্রে খবর, দু’টি গরু নিয়ে হেঁটে আলওয়ারের রামগড় থেকে ফিরছিলেন আকবর ও তার সঙ্গী। কাছেই হরিয়ানার কোলগাঁও গ্রামের বাসিন্দা দু’জনেই। গ্রামে ফেরার পথে কয়েকজন তাদের আটকায়। গরু পাচারকারী বলে গাল দিতে দিতে শুরু হয় গণপিটুনি। বাঁশ-লাঠি দিয়ে মারধরের পাশাপাশি চলে কিল-চড়-ঘুসি। ঘটনাস্থলেই মারা যান বছর ২৮ বছরের আকবর। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তার সঙ্গীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

২০১৭ সালের ৫ এপ্রিল এই আলওয়ারেই শ-দুয়েক স্বঘোষিত গোরক্ষক সাতজনকে বেধড়ক মারধর করে। বাকি ছ’জন প্রাণে বাঁচলেও, মৃত্যু হয় পেহলু খান নামে এক ব্যক্তির। সেই ঘটনার পর ভারতজুড়ে তোলপাড় হয়। এমনকী, দেশটির পার্লামেন্টেও এ নিয়ে আলোচনা হয়। স্বঘোষিত এই গোরক্ষকদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হন বিরোধীরা। সাধারণ মানুষের মধ্যেও তীব্র প্রতিক্রিয়া হয়। কিন্তু তারপরও গোরক্ষার নামে গণপিটুনিতে মৃত্যু আটকানো যায়নি। গত দু’বছরে এই ধরনের ঘটনায় অন্তত ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

চার দিন আগেই এ নিয়ে তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করে, গণপিটুনি রুখতে নতুন আইন আনার পরামর্শ দেয় সুপ্রিম কোর্ট। কিন্তু সংসদে রাজনাথ সিং জানিয়ে দেন, এই মুহূর্তে এ নিয়ে নতুন আইন আনার কোনও প্রয়োজন নেই। তবে গুজব বা গোরক্ষার নামে গণপিটুনি ঠেকাতে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে আশ্বাস দেন তিনি। কিন্তু ভারতীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ওই আশ্বাস এখনও যে শুধু কথার কথা, এক সপ্তাহের মধ্যেই তা বুঝিয়ে দিল শুক্রবার রাতের এই হত্যাকাণ্ড। সূত্র : আনন্দবাজার

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here