জয় একজন সাইক্রিয়াটিস্ট আর মিতু জয়ের স্ত্রী। মিতু বেশ ধৈর্যশীল, শান্ত স্বভাবের ও মিষ্টি একটি মেয়ে। তারা দুজন স্বাভাবিক দাম্পত্য জীবন-যাপন করতে থাকে। মিতুর প্রতিটি ব্যাপারই জয় গুরুত্ব দেয়। মিতুও জয়ের সাথে তার সম্পর্কের ব্যাপারে খুব সচেতন। হঠাৎ হাসান নামের এক মানসিক রোগী জয়ের কাছে আসে। জয় হাসানের চিকিৎসা করতে থাকে। চিকিৎসা চলাকালীন সময়ে জয় ও হাসানের মাঝে একধরনের ঘনিষ্ঠতা তৈরি হয়। হাসান আসার কারণে জয় ও মিতুর দাম্পত্য জীবনে একটি অজানা গল্পের সূত্রপাত ঘটে। এমনই একটি গল্প নিয়ে নির্মিত হচ্ছে একক নাটক “মোহমায়া”।

কারুকাজ প্রোডাকশনের ব্যানারে “মোহমায়া” নাটকটি নির্মাণ করছেন আর কে সরকার। আজ (২০ জুলাই) থেকে উত্তরা সহ রাজধানীর বিভিন্ন লোকেশনে এর চিত্রায়ন করা হচ্ছে। এতে প্রধান চরিত্রে রূপদান করবেন নাট্যভিনেতা শ্যামল মাওলা, এফ এস নাঈম ও নাট্যভিনেত্রী ঊর্মিলা শ্রাবন্তি কর।

নাটকটির গল্প লিখেছেন শুভ্র সরখেল এবং এতে নির্বাহী প্রযোজকের দায়িত্বও তিনি পালন করেছেন আর আবহ সংগীত করেছেন শান।

প্রোডাকশন কো-অর্ডিনেটর হিসেবে আছেন মামুন খান, মেকআপম্যান হিসেবে আছেন, সিদ্দিক।

নাটকটি সম্পর্কে শ্যামল মাওলা বলেন, ‘নাটকটির গল্প খুবই চমৎকার। যখন গল্পটি আমি পড়ি মনে হয়েছে বর্তমান সময়ের গতানুগতিক ধারার চেয়ে ভিন্ন কিছু দর্শক উপভোগ করতে পারবে। আর কে সরকার নতুন পরিচালক সেটা কাজ করতে এসে একবারের জন্যও মনে হয়নি। আর ও এর আগে যে প্রোডাকশন হাউজে ছিল সেখানেও বেশ কয়েকটি কাজ একসাথে করেছি যার ফলে একসাথে কাজ করতেও ভালো লাগছে।’

উর্মিলা শ্রাবন্তী কর বলেন, ‘ নাটকটির গল্পটা অসাধারণ। পরিচালকও খুব যত্ন নিয়ে কাজটি করছেন। শ্যামল ভাইয়ের সাথে কাজ করতে সবসময় ভালো লাগে। নাটকটি দর্শকদের একটু হলেও ভাবাবে।

নাটকটি সম্পর্কে নাঈম বলেন,’ সাইকোলজি রোগীর ও একটি পারিবারিক গল্প ফুটে উঠবে নাটকটিতে। দর্শকদের কথা চিন্তা করেই নাটকটি সাজানো হয়েছে। দর্শকরা ভালো একটা কাজ দেখতে পাবে।’

এই নাটকটিতে শ্যামল মাওলা, এফ এস নাঈম ও নাট্যভিনেত্রী ঊর্মিলা শ্রাবন্তি কর ছাড়া আরও অভিনয় করছেন সুস্মিতা দত্ত, রিয়া চৌধুরী প্রমুখ।

নির্মাতা সুত্রে জানা যায়, নাটকটি আসছে ঈদুল আজহায় যে কোন একটি স্যাটেলাইট চ্যানেলে প্রচারিত হবে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here