অনেকসময় খালি পেটে থাকলে কিংবা ভারী খাবার খেলে পেটে জ্বালাপোড়া অনুভূত হয়। যা ধীরে ধীরে বুকেও জ্বালাপোড়া ভাব তৈরি করে। অ্যাসিডিটির এই সমস্যা কমবেশি সবারই হয়। ঝাল খাবার, অনিয়মিত খাদ্যাভাস, মানসিক চাপ, শারীরিক পরিশ্রম কম করলে এবং অ্যালকোহল পান করলেও অ্যাসিডিটির সমস্যা হতে পারে।

এর ফলে শরীরের অস্বস্তি, ব্যথা অনুভূত হয়। এ ধরনের সমস্যা হলে বেশিরভাগ মানুষই গ্যাস্ট্রিকের ওসুধ সেবন করেন। তবে প্রাকৃতিক উপায়েও এ সমস্যা দূর করা যায়।

অ্যাসিডিটির সমস্যা কখনও কখনও মারাত্মক হয়।কিছু কিছু উপসর্গ দেখা দিলে সাবধান হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।যেমন-

১. পাকস্থলীতে খুব বেশি জ্বালাপোড়া ভাব হলে

২. গলা ও বুকে জ্বালাপোড়া করলে

৩. নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ হলে

৪. হজমে সমস্যা হলে

৫. মুখের মধ্যে টক স্বাদ অনুভূত হলে

৬. বমি বমি ভাব হলে

৭. কোষ্টকাঠিন্য দেখা দিলে

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এ ধরনের উপসর্গ দেখা দিলে অবশ্যই তা নিরাময়ের চেষ্টা করতে হবে। গবেষণায় দেখা গেছে, লবঙ্গ অ্যাসিডিটি দূর করতে দারুন কার্যকরী।

বিশেষজ্ঞদের মতে, পুষ্টি সমৃদ্ধ লবঙ্গ হজমে সাহায্য করে। রান্না কিংবা খাবারে এটি যোগ করলে তা অ্যাসিটিডি দূর করতে সাহায্য করে। বিশেষ করে দারুচিনি ও লবঙ্গ একসঙ্গে দিলে তা অ্যাসিটিডি দূর করতে দারুন ভূমিকা রাখে। এগুলোতে থাকা ওষুধি উপাদান অ্যাসিডিটি দূর করে এবং পেটে জমে থাকা গ্যাস কমায়।

দুই থেকে তিনটা লবঙ্গ একসঙ্গে চিবুলে এটি অ্যাসিডিটি দূর করে তাৎক্ষণিক আরাম দেয়। আর দারুচিনির সঙ্গে লবঙ্গ একসঙ্গে চিবুলে তা শুধু অ্যাসিডিটিই সারাবে না , মুখের দর্গন্ধও দূর করবে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here