দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া খনি থেকে ১ লাখ ৪৪ হাজার মেট্রিক টন কয়লা খোয়া যাওয়ার প্রমাণ পেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

সোমবার দুদক দিনাজপুর কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. বেনজির আহমেদের নেতৃত্বে ৫ সদস্যের দল বিকেল তিনটার দিকে বড়পুকুরিয়া খনি এলাকায় যান। এসময় তারা ইয়ার্ড পরিদর্শন করেন।

সেখানে থাকা কয়লার মজুদের সাথে কাগজের তথ্য মিলিয়ে দেখেন তারা। বেনজীর আহমেদ জানান, কয়লার মজুদ সংক্রান্ত কাগজপত্র অনুযায়ী এক লাখ ৪৬ হাজার টন কয়লা মজুদ থাকার কথা। কিন্তু ইয়ার্ডে মজুদ দেখলাম প্রায় দুই হাজার টন।

তদন্ত দলের প্রধান জানান, তাদের প্রতিবেদনের ভিত্তিতে পরবর্তীতে দুদক অধিকতর তদন্ত করবে। দু’মাসের মধ্যে প্রতিবেদন প্রকাশ হবে বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, কয়লা সংকটের কারণে বড়পুকুরিয়া তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের উৎপাদন বন্ধ হয়ে গেছে। পরে জানা গেছে, খনির মজুদকৃত কয়লার বৃহৎ অংশ গায়েব হয়ে গেছে। এ ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও। আর সাময়িক অসুবিধার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here