গুলশানের হলি আর্টিসান বেকারিতে জঙ্গি হামলার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় আটজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দিয়েছে পুলিশ। আজ সকালে মামলার তদন্ত সংস্থা পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) প্রধান মনিরুল ইসলাম মিন্টো রোডে সংবাদ সম্মেলন করে এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, সব আনুষ্ঠানিকতা শেষে মামলার চার্জশিট আদালতে পাঠানো হয়েছে। এতে আটজনের নাম থাকলেও হলি আর্টিসানে হামলায় জড়িত ২১ জনকে চিহ্নিত করা হয়। তবে অন্য আসামিরা বিভিন্ন সময়ে আইনশৃঙ্খলবাহিনীর অভিযানে নিহত হওয়ায় তাদের নাম চার্জশিট থেকে বাদ দেয়া হয়।

চার্জশিটভুক্ত আসামিরা হলো— নব্য জেএমবির শীর্ষ নেতা জাহাঙ্গীর হোসেন ওরফে জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব গান্ধী, রাকিবুল হাসান রিগ্যান, রাশেদুল ইসলাম ওরফে র‌্যাশ, সোহেল মাহফুজ, মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান, হাদিসুর রহমান সাগর, শহিদুল ইসলাম খালেদ ও মামুনুর রশিদ রিপন। এদের মধ্যে খালেদ ও রিপন পলাতক। বাকিরা বিভিন্ন সময়ে গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে আছেন।

অভিযোগপত্রে পলাতক দুই আসামি শহীদুল ইসলাম খালেদ ও মামুনুর রশিদ রিপনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা চাওয়া হয়েছে বলেও সংবাদ সম্মেলনে জানান সিটিটিসি প্রধান।

২০১৬ সালের ১ জুলাই রাতে হলি আর্টিসানে হামলা চালিয়ে ১৭ বিদেশিসহ ২০ জনকে গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যা করে জেএমবি জঙ্গিরা। জঙ্গিদের গ্রেনেড হামলায় ডিবির সিনিয়র সহকারী কমিশনার রবিউল করিম ও বনানী থানার ওসি সালাহউদ্দিন খান নিহত হন। আহত হন আরও ৩০ জন পুলিশ সদস্য। রাতভর বেশ কয়েকজনকে বেকারির মধ্যে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে রাখে জঙ্গিরা। ২ জুলাই ভোরে সেনাবাহিনীর কমান্ডো অভিযানের মধ্য দিয়ে জিম্মি সংকটের অবসান ঘটে। হামলায় অংশ নেওয়া ছয় জঙ্গি অভিযানে নিহত হয়।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here