পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনের প্রাথমিক ফলে ইমরান খানের বিজয় প্রায় নিশ্চিত হয়েছে। দেশটির জাতীয় ক্রিকেট দলের এক সময়ের অধিনায়ক এখন পরমাণু শক্তিধর দেশটির হাল ধরতে যাচ্ছেন।

ব্যক্তিগত জীবন
শুধু খেলা বা রাজনীতি নয়, ব্যক্তি জীবনের নানা খবর দিয়েও বরাবরই সংবাদমাধ্যমের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন ইমরান খান। ৬৫ বছর বয়সে তৃতীয়বার বিয়ে করেন ইমরান। ভবিষ্যত বক্তা বুসরা মানেকার আগে ব্রিটিশ সেলিব্রেটি জেমিমা গোল্ডস্মিথ এবং পাকিস্তানি টিভি অ্যাংকর রেহাম খান ইমরানের স্ত্রী ছিলেন।

খেলা শুরু
১৯৫২ সালের ৫ অক্টোবর লাহোরে জন্মগ্রহণ করেন ইমরান খান। ছোটবেলা থেকেই খেলাধুলার প্রতি বিশেষভাবে আকৃষ্ট ছিলেন ইমরান। ১৯৬৮ সালে ষোল বছর বয়সে লাহোরের হয়ে সারগোরার বিরুদ্ধে প্রথম ফার্স্ট ক্লাস ম্যাচ খেলেন তিনি।

জাতীয় দলে ডাক
ক্রিকেটের প্রতি ইমরান খানের আগ্রহ এবং লেগে থাকাই তাকে দ্রুত স্থান করে দেয় পাকিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দলে। ১৯৭০ সালে যখন দলে ডাক পান, তখনও তার পড়াশোনাই শেষ হয়নি।

রাজনীতি
১৯৯৬ সালে রাজনীতিতে যোগ দেন ইমরান। গঠন করেন তেহরিক-ই-ইনসাফ পার্টি। গত নির্বাচনে দ্বিতীয় স্থানে থাকলেও এবার অন্যদের পেছনে ফেলে তার দল উঠে এসেছে শীর্ষে।

রাজনীতি
১৯৯৬ সালে রাজনীতিতে যোগ দেন ইমরান। গঠন করেন তেহরিক-ই-ইনসাফ পার্টি। গত নির্বাচনে দ্বিতীয় স্থানে থাকলেও এবার অন্যদের পেছনে ফেলে তার দল উঠে এসেছে শীর্ষে।

অভিযোগের পাহাড়
নির্বাচনের ঠিক আগে আগে ইমরানের দ্বিতীয় স্ত্রী রেহাম খান তার আত্মজীবনীতে ইমরানের বিরুদ্ধে বেশ কিছু গুরুতর অভিযোগ আনেন। রেহামের অভিযোগ, ইমরানের সঙ্গে যৌন সম্পর্কে জড়ালেই কেবল নারীরা দলে বড় পদ পেতে পারেন।

পাকিস্তানের ট্রাম্প!
ইমরান খানকে অনেকেই পপুলিস্ট বলে আখ্যা দিয়ে থাকেন। জঙ্গিবাদের প্রতি তার উদার দৃষ্টিভঙ্গিরও সমালোচনা করেন অনেকে। ধারণা করা হয়, তালেবানের মতো বেশকিছু উগ্রপন্থি দলের সাথে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রেখে চলেন ইমরান।

আমেরিকার সমালোচক
সন্ত্রাসবিরোধী যুদ্ধে আমেরিকার ভূমিকা এবং তাতে পাকিস্তানের অংশগ্রহণের বড় সমালোচক ইমরান। পাকিস্তানের অনেক সমস্যার পেছনে দেশটির আমেরিকাপ্রীতিই বড় কারণ বলে একাধিক বক্তব্যে বলেছেন তিনি।

দুর্নীতিবিরোধী অবস্থান
দুর্নীতির বিরুদ্ধে বরাবরই সরব ইমরান খান। বিশেষ করে সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ ছিলেন তার আক্রমণের মূল লক্ষ্য। লন্ডনে বাড়ি ক্রয় সংক্রান্ত দুর্নীতি মামলার সাজায় নওয়াজ শরীফ ও তার মেয়ে মরিয়ম নওয়াজ এখন পাকিস্তানের কারাগারে আছেন।

তরুণদের মন জয়
পাকিস্তানের তরুণদের মন দ্রুতই জয় করে নিয়েছেন ইমরান খান। তার ‘নতুন পাকিস্তান’ স্লোগান তরুণ প্রজন্মের মুখে মুখে। ২০১২ সালে এশিয়া সোসাইটির জরিপে ‘এশিয়া’স পারসন অব দ্য ইয়ার’ নির্বাচিত হন ইমরান।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here