ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের নাম পাল্টে ‘বাংলা’ করার প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সর্বসম্মতভাবে রাজ্যের নাম বদলের বিলটি বিধানসভায় সর্বসম্মতিক্রমে পাস হয় বলে জিনিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

বিধানসভার বাদল অধিবেশনে রাজ্যের নাম বদলের প্রস্তাবটি উত্থাপন করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এসময় তিনি বলেন, বর্তমানে বাংলা, ইংরেজি, হিন্দি- এই তিন ভাষায় রাজ্যের তিনরকম নাম লেখা হয়ে থাকে। বাংলায় রাজ্যের নাম লেখা হয় ‘পশ্চিমবঙ্গ’। ইংরেজিতে ‘ওয়েস্ট বেঙ্গল’। আর হিন্দিতে ‘বাঙ্গাল’।

মুখ্যমন্ত্রী জানান, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্টমন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে রাজ্যের একটি নাম নির্দিষ্ট করতে বলা হয়েছে। সেই নামই প্রত্যেক ভাষায় ব্যবহার করা হবে।

সেক্ষেত্রে রাজ্যের নাম ‘বাংলা’ রাখার পক্ষেই বিধানসভায় প্রস্তাব করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি তিনি আহ্বান জানান, রাজনৈতিক বিরোধিতা দূরে সরিয়ে রেখে রাজ্যের নাম ‘বাংলা’ রাখতে সবাই যেন সহমত হয়।

বিধানসভায় মুখ্যমন্ত্রী বলেন, সমগ্র বিশ্বে পঞ্চম বৃহত্তম ভাষা ‘বাংলা’। তাই রাজ্যের নাম বদলে ‘বাংলা’ রাখা প্রাসঙ্গিক।

তিনি আরও বলেন, দুই বছর আগে ২০১৬-র বাদল অধিবেশনের সময়ই তিনি রাজ্যের নাম ‘বাংলা’ রাখার কথা প্রস্তাব করেছিলেন। এই প্রসঙ্গে উড়িষ্যা, মুম্বাই ও মাদ্রাজের নাম বদলে সর্বসম্মতিক্রমে উড়িশা, মুম্বাই, চেন্নাই করার কথাও এদিন উল্লেখ করেন মমতা।

তবে, কেন্দ্র চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়ার পরই সরকারিভাবে রাজ্যের নাম বদল সম্পন্ন হবে। উল্লেখ্য, এর আগে রাজ্যের নাম ইংরেজিতে ওয়েস্ট বেঙ্গলের পরিবর্তে শুধু ‘বেঙ্গল’ ও বাংলায় ‘বাংলা’ করার প্রস্তাব দিয়েছিল নবান্ন। কিন্তু রাজ্যের সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিল কেন্দ্র।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here