বিয়ে বাড়ি কিংবা ঈদের উৎসবের অতি পরিচিত খাবার শাহী জর্দা। অনেকে খেতে পছন্দ করে হয়তো রান্না করতে পারে না। তাই মন চাইলেও খেতে পারে না, আবার কাউকে খাওয়াতেও পারে না।

তবে যারা এ রান্না পারেন না, তাদের চিন্তিত হবার কারণ নেই। কারণ তাদের জন্য রইলো সবচেয়ে সহজ পদ্ধতিতে সুস্বাদু জর্দার রেসিপি।

উপকরণ:

★ বাসুমতি চাল- দেড় কাপ

★ কমলার খোসা ৪/৫ টুকরা

★ এলাচ ৫/৬ পিস

★ তেজপাতা ২টি

★ দারুচিনি ২টি

★ চিনি দেড় কাপ (জর্দায় চিনির পরিমাণ একটু বেশি দিতে হয়)

★ পানি পৌনে ১ কাপ

★ লং পরিমান মতো

★ ঘি ৩ টেবিল চামুচ

★ রান্নার তেল ১ টেবিল চামুচ

★ বেবি সুইটস (২/৩ কালারের পরিমান মতো)

★ গোলাপ জল ও কেউরা জল পরিমান মতো

★ মাওয়া ১ টেবিল চামুচ

★ কিসমিস পরিমান মতো

★ কাঠ বাদাম কুচি পরিমান মতো

★ পেস্তা বাদাম পরিমান মতো

★ শুকানো মিক্সফল পরিমান মতো

★ চাল কুমড়ার মোরব্বা হাপ কাপ

★ কমলার কোয়া এক কাপ

★ লবণ এক চিমটি

★ গাঢ় জর্দা রং পরিমান মতো (খাবারে দেয়ার উপযুক্ত এবং বিএসটিআইয়ের অনুমোদিত রং হতে হবে।

প্রণালী:

প্রথমে একটি পাত্রে চাল ৩০ মিনিট ভিজিয়ে রাখতে হবে। ভেজানো চাল ইস্টেনারে ছেকে পানি ঝড়াতে হবে। অন্য একটি পাত্রে পরিমান মতো পানি দিয়ে তার মাঝে কমলার খোসা ও র্জদ্দা রং দিতে হবে। পানি যখন গরম হবে তখন পানি ঝরানো চালকে ৭৫ ভাগ পর্যন্ত সেদ্ধ করতে হবে। সেদ্ধ হলে চালগুলো আবার ইস্টেনারে ঢেলে কিছু সময় রেখে পানি ঝড়িয়ে নিতে হবে। এবার অন্য একটি পাত্রে তেল ও ঘি দিয়ে সব ধরনের মসলা, চিনি ও পৌনে এক কাপ পানি দিয়ে চিনি গলা পর্যন্ত নাড়তে হবে। চিনি গলার পর সেদ্ধ চাল দিয়ে কমলার কোয়া, কিসমিস, মোরব্বা, কাঠবাদাম, পেস্তা বাদাম, শুকনো মিক্স ফল দিতে হবে। গোলাপ ও কেওরা জল দিয়ে চুলার আঁচ মাঝারি রেখে ২০ মিনিট দমে রেখে চাল ঝরঝরে হলে নামাতে হবে। পরে একটি বলে ঢেলে তারমধ্যে বেবি সুইটস ও মাওয়া ছিটিয়ে পরিবেশন করতে হবে, এই ডিসটি ৪/৫ জনের জন্য উপযুক্ত।

তবে দেরি কেন! আপনিও আজই রান্না করুন এবং প্রিয়জনকে পরিবেশন করুন। দেখুন, তাদের অনুভুতি।

কৃতজ্ঞতা: ফারহান খান

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here