খবরের কাগজ খুললেই চোখে পড়ে গোরক্ষকদের হাতে মুসলিম নির্যাতনের দৃশ্য। এমনকি মন্ত্রী-এমপিও মুসলিমবিদ্বেষী বক্তব্য দেন। ভারতে বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই এমন দৃশ্য দেশটিতে।

দেশ পরিচালনার দায়িত্ব যাদের হাতে তারাই সাম্প্রদায়িক সংঘাত ছড়াচ্ছেন। অন্যদিকে সাধারণ মানুষ অন্য ধর্মের উপাসনালয় রক্ষায় এগিয়ে এসে সম্প্রতি শক্ত করছেন।

ভারতের নদীয়ায় চাপড়া থানার দক্ষিণ বড় আন্দুলিয়া গ্রামে জলঙ্গি নদীর ধারে রয়েছে একটি বহু পুরনো মসজিদ। গত কয়েক দিনের বৃষ্টিতে জলঙ্গি নদীতে ব্যাপক ভাঙন শুরু হয়। দুই দিনের টানা বৃষ্টিতে ভাঙন শুরু হয় জলঙ্গি নদীতে। ভাঙনের ফলে বিপন্ন হয়ে পড়েছে নদিয়ার চাপড়া অঞ্চলের একটি মসজিদ।

শুক্রবার জলঙ্গি নদীর গ্রাস থেকে মসজিদ রক্ষা করতে একজোট হয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে হিন্দু-মুসলিম নির্বিশেষে গোটা গ্রাম। সকালে পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করলে মসজিদের মাইকে ঘোষণা করে বিষয়টি গ্রামবাসীদের জানানো হয় ও সাহায্যের আবেদন করা হয়।

এই ঘোষণার পরেই মসজিদ বাঁচাতে ঝাঁপিয়ে পড়ে গোটা গ্রাম। নিজামউদ্দিন, আলমগিরের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে ভাঙন রুখতে কাজ শুরু করেন অভিজিৎ, গৌরাঙ্গরা।

সারা দিন ধরে চলে নদীর ধারে বাঁশের খুঁটি বসিয়ে তাতে বালি, সিমেন্টের ব্যাগ ফেলে অস্থায়ী বাঁধ তৈরি। অস্থায়ী বাঁধের কারণে আপাতত ভাঙন রুখে বাঁচানো সম্ভব হয়েছে মসজিদটিকে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here