ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহেরুর সম্বন্ধে সাম্প্রতিক দেওয়া বক্তব্যের জন্য দুঃখপ্রকাশ করলেন দলাই লামা। দিনকয়েক আগে তিনি নেহেরুকে ‘আত্মকেন্দ্রীক’ বলে সমালোচনা করেছিলেন। এরপর তিনি বলেন, ‘আমার মন্তব্যে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। যদি কোনও ভুল কিছু বলে থাকি, তাহলে আমি তার জন্য ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি’।

দলাই লামা বলেছিলেন, ভারতবর্ষ একটি অখণ্ড দেশ থাকত, যদি মহাত্মা গান্ধীর পছন্দকে গুরুত্ব দিয়ে জওহরলাল নেহেরু দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রীর পদটি ছেড়ে দিতে রাজি হতেন মহম্মদ আলি জিন্নাকে।

‘আমি যখন জানতে পেরছিলাম, গান্ধীজী পার্টিশনের বিপক্ষে ছিলেন, অত্যন্ত মর্মাহত হয়েছিলাম। পাকিস্তানের থেকেও ভারতে মুসলমানের সংখ্যা অনেক বেশি। কিন্তু অতীত তো অতীতই, ৮৩ বছরের তিব্বতি ধর্মগুরু এই কথা বলেন গত শুক্রবার।

এই বিতর্কের সূত্রপাত গোয়াতে। পড়ুয়াদের সঙ্গে একটি প্রশ্নোত্তরের সেশনে উপস্থিত ছিলেন তিনি। সেখানেই একজন প্রশ্ন করেন, কীভাবে নিজেদের জীবনের জীবনের সিদ্ধান্তগুলো নেওয়া যায়। কীভাবেই বা, জীবনের চলার পথে ত্রুটি এড়ানো যায়? উত্তরে দলাই লামা বলেন, ‘মহাত্মা গান্ধী চেয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী হোক মহম্মদ আলি জিন্না। কিন্তু নেহেরু তা চাননি। তিনি স্বার্থপর ছিলেন। তিনি বলেছিলেন, ‘আমি প্রধানমন্ত্রী হতে চাই। ভারত ও পাকিস্তান আজও অখন্ডই থাকত, যদি নেহেরুর বদলে প্রধানমন্ত্রী হতেন জিন্না। পন্ডিত নেহেরু জ্ঞানী ও অভিজ্ঞ ব্যক্তি ছিলেন। কিন্তু ভুল তো হয়েই যায়।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here