ইরানের ভূমি থেকে ভূমিতে এবং জাহাজ থেকে সাগরের যেকোনো লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম নয়া অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র ‘ফাহেত মোবিন’-এর মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। ক্ষেপণাস্ত্রটির শীর্ষদেশে রয়েছে অনুসন্ধানকারী প্রযুক্তি যা দিয়ে এটি নিক্ষেপের পরও লক্ষ্যবস্তুকে খুঁজে বের করে তাতে আঘাত হানতে সক্ষম।

ইরানের প্রতিরক্ষা শিল্পের বার্ষিকীকে সামনে রেখে আজ (সোমবার) তেহরানে প্রতিরক্ষামন্ত্রী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আমির হাতামির উপস্থিতিতে এ ক্ষেপণাস্ত্র উদ্বোধন করা হয়। ইরানের আকাশ প্রতিরক্ষা বিভাগের বিশেষজ্ঞরা এ ক্ষেপণাস্ত্র উৎপাদন ও প্রয়োজনীয় পরীক্ষা সম্পন্ন করেছেন।

স্বল্প পাল্লার এই ক্ষেপণাস্ত্র রাডারসহ শত্রুপক্ষের যেকোনো ধরনের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকে ফাঁকি দিয়ে প্রতিকূল আবহওয়ায়ও লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম।  তবে এ ক্ষেপণাস্ত্র কত দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে পারে তা ঘোষণা করা হয়নি।

এটির উদ্বোধনি অনুষ্ঠানে দেয়া এক বক্তব্যে ইরানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেছেন, তার দেশের স্বাধীনতা, নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা রক্ষায় প্রতিরক্ষা শিল্প উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করছে।  তিনি বলেন, ‘ফাতেহ মোবিন’ ক্ষেপণাস্ত্রকে ঠেকিয়ে দেয়ার মতো কোনো প্রযুক্তি বিশ্বে কারো কাছে নেই। সম্পূর্ণ নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি এ ক্ষেপণাস্ত্র বহু বছরের জন্য ইরানের নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here