প্রথম মৌসুমে চোট জর্জর হয়ে খেলতে পারেননি উসমান দেম্বেলে। অনেকেই তাকে বাতিলের খাতায় ফেলে দিয়েছিলেন। এমনকি দল বদলের গুঞ্জনটিও ভেসে বেড়াচ্ছিল ন্যু ক্যাম্পে। সেই ফরাসি ফরোয়ার্ড ভূমিকা রাখলেন বার্সেলোনার সুপার কাপ জয়ে। রবিবার মরক্কোতে সেভিয়াকে ২-১ গোলে হারিয়ে স্প্যানিশ সুপার কাপ ঘরে তুলেছে কাতালানরা।

স্পেনের ঘরোয়া ফুটবলের দুই প্রতিযোগিতা লা লিগা ও কোপা দেল রে চ্যাম্পিয়নরা সুপার কাপে পরস্পরের মুখোমুখি হয়। গত মৌসুমে দুটি শিরোপাই বার্সেলোনা জেতায় সুপার কাপে কাতালান ক্লাবটির প্রতিদ্বন্দ্বী কোপা দেল রের রানার্সআপ সেভিয়া।

এবারই প্রথম স্প্যানিশ সুপার কাপ হলো স্পেনের বাইরে। এই প্রথম দুই লেগের পরিবর্তে লড়াইটা হলো এক ম্যাচের।

খেলার ধারার বিপরীতে নবম মিনিটে এগিয়ে যায় সেভিয়া। লুইস মুরিয়েলের কাছ থেকে বল পেয়ে জাল খুঁজে নেন পাবলো সারাবিয়া। রেফারি শুরুতে অফসাইডের জন্য গোল বাতিল করেন। পরে রিপ্লে দেখে গোলের বাঁশি বাজান তিনি।

৪২তম মিনিটে বার্সেলোনাকে সমতায় ফেরান জেরার্দ পিকে। মেসির ফ্রি কিক পোস্টে লাগলে সুযোগ এসে যায় এই ডিফেন্ডারের সামনে। সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া করেননি তিনি।

খেলার শেষ দিকে জাল খুঁজে নেন ফ্রান্সের বিশ্বকাপ জয়ী দলের সদস্য দেম্বেলে।

যোগ করা সময়ে মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেন আলেইশ ভিদালকে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় সেভিয়া। কিছুক্ষণ আগে বদলি নামা বেন ইয়েদেরের শট ঠেকিয়ে দেন বার্সেলোনা গোলরক্ষক। ম্যাচ যায়নি অতিরিক্ত সময়ে।

এ নিয়ে ত্রয়োদশবারের মতো স্প্যানিশ সুপার কাপ জিতল বার্সেলোনা। ২০১০ ও ২০১৬ সালের পর আবার সুপার কাপে বার্সেলোনার কাছে হারল সেভিয়া।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here