সহকর্মী-শুভাকাঙক্ষী ও বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় সিক্ত হলেন বরেণ্য সাংবাদিক, সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ার। আজ বেলা পৌনে ১১টায় তাঁর মরদেহ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নেওয়া হয়েছে। সেখানে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের ব্যবস্থাপনায় সর্বস্তরের মানুষ তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানান। এসময় অনেকেই অশ্রুসিক্ত হয়ে পড়েন।

শহীদ মিনারে উপস্থিত হয়ে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী, আওয়ামী লীগের পক্ষে উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ও অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, উপদেষ্টামন্ডলীল সদস্য ও বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম।

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের পক্ষে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, তথ্য সচিব আব্দুল মালেক, পুলিশের পক্ষে আইজি, র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ, বাংলাদেশ জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি আরেফিন সিদ্দিক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রামেন্দ্র মজুমদার, মানবাধিকারকর্মী খুশি কবীর, সমকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মুস্তাফিজ শফি, প্রকাশক এ কে আজাদ প্রমুখ।

এসময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘গোলাম সারওয়ার বাংলাদেশের একজন গৌরবোজ্জ্বল মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। তিনি একজন আপসহীন কলমযোদ্ধা তা আমরা তার লেখনীর মাধ্যমে জানি। তিনি সবার কাছে একজন গ্রহণযোগ্য ব্যক্তি ছিলেন। ভালো মানুষগুলো কেন জানি আস্তে আস্তে চলে যাচ্ছে। আমার কাছে খুব খারাপ লাগছে। একথা ভাষায় প্রকাশ করার মতো না।

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, সারওয়ার ভাই সাংবাদিক জগতের কিংবদন্তি হয়েছিলেন। অসময়ে চলে গেছেন তিনি, আমরা এরকম আশা করি নাই। এই ক্ষতি কোনওদিন পূরণ হবে না।

শহীদ মিনারে সর্বস্তরের শ্রদ্ধা জানানোর পর দুপুর ১টায় গোলাম সারওয়ারের মরদেহ নেওয়া হবে জাতীয় প্রেস ক্লাবে। সেখানে তার সাংবাদিক সহকর্মীরা গোলাম সারওয়ারকে শেষ বিদায় জানাবেন। রণাঙ্গনের মুক্তিযোদ্ধা গোলাম সারওয়ারকে তার প্রিয়স্থান প্রেস ক্লাব চত্বরেই তাকে রাষ্ট্রীয় সম্মাননা জানানো হবে।

এর আগে গোলাম সারওয়ারকে শেষবারের মতো তেজগাঁওয়ে তার প্রিয় কর্মস্থল সমকালের প্রধান কার্যালয়ে নেওয়া হয়েছিল।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টায় বারডেমের হিমঘর থেকে তার মরদেহ সমকাল কার্যালয়ে নেওয়া হয়। এসময় সমকাল কার্যালয়ে শোকের ছায়া নেমে আসে। সকাল সোয়া ৯টায় সমকাল কার্যালয়-সংলগ্ন বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ের ওসমানী হল মাঠে গোলাম সারওয়ারের তৃতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রসঙ্গত, সোমবার (১৩ আগস্ট) রাত ৯টা ২৫ মিনিটে সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গোলাম সারওয়ারের মৃত্যু হয়।

এর আগে গত ৩০ জুলাই থেকে ফুসফুসের ইনফেকশন ও হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ল্যাব এইড হাসপাতালে ভর্তি হন গোলাম সারওয়ার। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ৩ আগস্ট শুক্রবার রাতে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে সিঙ্গাপুর নেওয়া হয়। তিনি সিঙ্গাপুরের জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here