উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধ আরোপিত আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞার তীব্র নিন্দা জানিয়ে দেশটির নেতা কিম জং-উন বলেছেন, ‘বিদ্বেষী শক্তিগুলো’ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে উত্তর কোরিয়ার জনগণকে ‘শ্বাসরোধ করে’ হত্যা করতে চায়।

উত্তর কোরিয়ার একটি উপকূলীয় পর্যটন এলাকায় একটি নির্মাণকাজ পরিদর্শনে গিয়ে আজ (শুক্রবার) এ নজিরবিহীন মন্তব্য করেন কিম।

উত্তর কোরিয়ার নেতা বলেন, বিদ্বেষী শক্তিগুলো ‘দস্যুতামূলক’ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে তার দেশের জনগণকে গলা টিপে হত্যা করতে চায়। তিনি এ নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলে জনগণের জন্য সুখ স্বাচ্ছন্দ নিশ্চিত করার জন্য তার দলের নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান।

উত্তর কোরিয়ার ওপর জাতিসংঘ, আমেরিকা ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের পক্ষ থেকে কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। ২০১৭ সালের জুলাই মাসে উত্তর কোরিয়া একটি নতুন ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানোর পর জাতিসংঘ দেশটির ওপর কঠোরতম নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে।

ওই নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও একই বছরের সেপ্টেম্বরে সবচেয়ে শক্তিশালী পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষা চালায় পিয়ংইয়ং। ওই পরীক্ষার পর ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও আমেরিকা পিয়ংইয়ংয়ের বিরুদ্ধে আরো কিছু নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে।

অবশ্য গত জুন মাসে সিঙ্গাপুরে কিম জং উনের সঙ্গে এক ঐতিহাসিক সাক্ষাতের পর  মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, উত্তর কোরিয়ার পরমাণু অস্ত্র কর্মসূচি বন্ধ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন দেশটির নেতা কিম জং-উন। পিয়ংইয়ং অবশ্য পরে নিষেধাজ্ঞা তুলে না নেয়া পর্যন্ত কোনো পরমাণু বা ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি বন্ধ করবে না উত্তর কোরিয়া।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here