ঈদে যাত্রীদের ভোগান্তি কমাতে যাত্রীবাহী বাস ফেরি পারাপারে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

রোববার (১৯ আগস্ট) গাবতলী বাস টার্মিনাল পরিদর্শন শেষে তিনি সাংবাদিকদের একথা বলেন।

আরিচা-দৌলতদিয়া রুটে বাসের চেয়ে পশুবাহী ট্রাকগুলোকে আগে ফেরি পারাপারের সুযোগ দেওয়ার কারণে যাত্রীদের দেড় থেকে দুই ঘণ্টা বেশি দেরি হচ্ছে -এমন অভিযোগের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, অভিযোগটি তিনি শুনেছেন। এ বিষয়ে নৌমন্ত্রী শাজাহান খানের সঙ্গে কথা বলবেন, যাতে যাত্রীবাহী বাসগুলোকে আগে সেতু পারাপারের সুযোগ দেওয়া হয়।

বাংলাদেশের ইতিহাসে অতীতের যে কোনো সময়ের চেয়ে সড়কের অবস্থা এখন অনেক ভালো মন্তব্য করে মন্ত্রী বলেন, ‘যানজট শুধু সড়কের কারণে হয় না। যানজট আরও অনেক কারণে হয়। তবে আজ ঢাকা-চট্টগ্রাম, ঢাকা-টাঙ্গাইল সড়কে খবর নিয়েছি, এখন পর্যন্ত যানজটের কোনো খবর পাইনি। যানজট হবেনা একথা আমি বলিনা। মাঝেমাঝে গাড়ি বিকল হয়ে যায়, এক্সিডেন্ট হয় এসব কারণে যানজট সৃষ্টি হয়।’

প্রতিকূল আবহাওয়ায় নদী বিক্ষুব্ধ হলে ফেরি পারাপারের অসুবিধা হয়, যা যানজটের কারণ উল্লেখ করে তিনি জানান, পশুবাহী গাড়িগুলোর ধীর গতিতে চলাচলও ঈদে যানজটের অন্যতম কারণ বলে জানান তিনি।

ওবায়দুল কাদের আশা করে বলেন, গতবারের চেয়ে এবারের যাত্রা স্বস্তিদায়ক হবে, সব জায়গায় মনিটরিং করা হচ্ছে। স্পর্শকাতর পয়েন্টগুলোতে র‌্যাব মোতায়েন করা হয়েছে।

মেঘনার পাশাপাশি গোমতীতেও ফেরি চালু করা হচ্ছে বলে মন্ত্রী জানান, ড্রেজিং করে গোমতীতে ফেরি চলাচলের উপযোগী করা হয়েছে। মেঘনা-গোমতীতে ডিসেম্বরে নতুন সেতু উদ্বোধনের আগ পর্যস্ত ফেরি সার্ভিস চালু থাকবে।

জাতীয় নির্বাচনের নিয়ে বিএনপির সাঙ্গে এবার কোনো আলোচনা নয়। পরবর্তী নির্বাচনে আলোচনা হবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও যোগাযোগ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। আজ রোববার  সকালে রাজধানীর গাবতলী বাস টার্মিনাল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এসব বলেন।

মন্ত্রী বলেন, আগামী জাতীয় নির্বাচন সংবিধান অনুযায়ী হবে। নির্বাচনকালীন সরকারের হাতে কোনো ক্ষমতা থাকবে না। সরকারের মন্ত্রিপরিষদ, পুলিশ প্রশাসন সব কিছুই থাকবে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অধীনে।

বিএনপি নির্বাচন জিততে পারবে না জানিয়ে তিনি বলেন, বিএনপি সংবিধান মানে নাম, আইন মানে না, আদালত মানে না, বিচার মানে না। বিএনপি আগামী নির্বাচনে হেরে যাবে বুঝতে পেরে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর অজুহাত খুঁজছে। তবে ২০১৪ সালের মতো যদি তারা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে চাইলে জনগণ তা প্রতিহত করবে।

ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের অবরুদ্ধ আছেন এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে তিনি বলেন, আপনারা আপনাদের প্রতিনিধি পাঠিয়ে দেখুন। তার বাড়ির সামনে কোনো আওয়ামী লীগ কিংবা পুলিশের কোনো সদস্য নেই।এখন মওদুদ সাহেব অবরোধের নাটক করছেন। এটা গুরুত্ব দেয়ার কোনো কারণ নেই।

মন্ত্রী আরো বলেন, অতীতের যে কোনো সময়ের চেয়ে এখন সড়কের অবস্থা ভালো। পশুবাহী গাড়ির কারণে রাস্তায় যান চলাচলে কিছুটা ধীরগতি রয়েছে। ফেরি পারাপারেও পশুবাহী গাড়িকে প্রায়োরিটি দেয়ায় যাত্রীবাহী গাড়ির একটু সময় লাগছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here