ঘরোয়া ক্রিকেটে তিনি পুরোদস্তুর সফল অলরাউন্ডার। কিন্তু আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ব্যাট হাতে দলের নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান হলেও বল হাতে সুযোগ মেলে কম। তারপরও যখনই সুযোগ পান, নিজের অলরাউন্ড প্রতিভাকে মিলে ধরেন। সাম্প্রতিক সময়ে মাঝে মধ্যেই বল হাতে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে দেখা মেলে আর ফলাফল পেলেন হাতেনাতেই। আইসিসি প্রকাশিত সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি র‍্যাংকিংয়ে অলরাউন্ডারদের মধ্যে মাহমুদউল্লাহ উঠে এসেছেন ষষ্ঠ অবস্থানে।

অনেক বছর থেকে বাংলাদেশের প্রতিনিধি হিসেবে সাকিব আল হাসানের নাম দেখা যেত সকল ধরনের র‍্যাংকিংয়ে। এবার সাকিবের সাথে যুক্ত হল মাহমুদউল্লাহ’র নাম। আইসিসি প্রকাশিত সর্বসশেষ টি-টুয়েন্টি র‍্যাংকিংয়ে অলরাউন্ডারদের তালিকায় যায়গা মিলেছে বাংলাদেশের লড়াকু ক্রিকেটার মাহমুদউল্লাহ’র। বেশকিছুদিন ধরে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি দলের প্রয়োজনে বল হাতেও দারুণ পারফরম্যান্স তাকে এই তালিকায় তুলে এনেছে। ২১৩ রেটিং নিয়ে অলরাউন্ডার র‍্যাংকিংয়ের ষষ্ঠ অবস্থানেও উঠে এসেছেন তিনি।

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে ব্যাট হাতে ৭৩ ম্যাচের ৬৬ ইনিংসে ২২.৭৮ গড়ে করেছেন ১১৮৫ রান, সর্বোচ্চ রান ৬৪*। বল হাতে ৪৮ ইনিংসে নিয়েছেন ২৬ উইকেট। ৭.৩২ হারে রান দিয়েছেন তিনি।

মাহমুদউল্লাহ’র রেটিং পয়েন্ট ২১৩, তাকে যায়গা ছেড়ে দিয়ে ষষ্ঠ অবস্থানে থাকা থিসারা পেরারা নেমে গেছেন সপ্তম অবস্থানে। তবে সবার উপরে ৩৬৬ পয়েন্ট নিয়ে অস্ট্রেলিয়ান অলরাউন্ডার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। দুইয়ে আফগান অলরাউন্ডার মোহাম্মদ নবী, আর ৩১০ রেটিং নিয়ে তিন নম্বরে বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান।

আইসিসির সেরা দশ টি-টোয়েন্টি অলরাউন্ডাররের র‍্যাংকিং :

১। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল (৩৬৬)

২। মোহাম্মদ নবী  (৩১৩)

৩। সাকিব আল হাসান৷ (৩১০)

৪। জেপি ডুমিনি৷ (২৩৪)

৫। মারলন স্যামুয়েলস (২২২)

৬। মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ  (২১৩)

৭। থিসারা পেরেরা  (২১০)

৮। পল স্টারলিং  (২০৮)

৯। রিচার্ড বেরিংটন  (২০২)

১০। সামিউল্লাহ শেনওয়ারি  (১৮৮)

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here