চ্যাম্পিয়নস লিগের গেল মৌসুমের ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে জুভেন্টাসের বিপক্ষে বাইসাইকেল কিকে চোখ জুড়ানো গোল করেছিলেন। সেই থেকেই ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর গোলটি ছিল বর্ষসেরা হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে। ঠিক সেটাই হয়েছে এবার। মঙ্গলবার উয়েফা ব্যাপারটি নিশ্চিত করেছে উয়েফা।

এর গত এক বছর উয়েফার বিভিন্ন টুর্নামেন্ট থেকে একটি করে মোট ১১টি গোলের সংক্ষিপ্ত তালিকা করা হয়। সেই সংখ্যাটা পরে উয়েফা নামিয়ে আনে তিনে। সেখান থেকেই দর্শকদের ভোটে বর্ষসেরা গোলের পুরস্কার পেলেন সিআর সেভেন। গত বছর এই পুরস্কার জিতেছিলেন মারিও মানজুকিচ। তার আগে ২০১৫ ও ২০১৬ সালে জিতেন লিওনেল মেসি।

চলতি বছরের ৩ এপ্রিল চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে লুকাস ভাসকেজের বুলেট গতির শট জুভেন্টাস গোলরক্ষক (এখন তিনি পিএসজির) জিয়ানলুইজি বুফন দারুণভাবেই সেভ করেছিলেন। কিন্তু বুফনের সেই জাদুকরি সেভকে রোনালদো স্রেফ ‘ওভার ট্রাম্প’ করেছিলেন। দানি কারভাহালের ক্রসটা ছিল রোনালদোর পেছনে, মানে গোলের উল্টো দিকে। সেটাও নিজের উচ্চতার চেয়েও বেশ উঁচুতে। কিন্তু রোনালদো পেছনে ঘুরেই একটু এগিয়ে নিজেকে ছুড়ে দিয়েছিলেন শূন্যে। বাইসাইকেল কিক! আড়াআড়ি উচ্চতার বলকে এমন কিকে পা ছোঁয়ানোই যেখানে অনেক কঠিন, সেখানে রোনালদোর শট বুফনকে নড়ার সুযোগটুকু না দিয়ে আশ্রয় নিয়েছে জালে। ম্যাচের ৬৪ মিনিটে রোনালদোর সেই জাদুকরি গোল উয়েফার বর্ষসেরা হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে।

রোনালদোর গোলটি ৩৫, ৫৫৮ ভোট পেয়েছে। যা মনোনীত অন্য যে কোনো গোলের পাঁচ গুনেরও বেশি। দ্বিতীয় সেরা গোল নির্বাচিত হয়েছে ইউরোপা লিগের শেষ আটে লাইপজিগের বিপক্ষে মার্সেইয়ের দিমিত্রি পায়েতের করা গোলটি।

পুরস্কার জয়ের পর টুইটারে সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন রোনালদো। এ ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘আমাকে যারা ভোট দিয়েছেন সবাইকে ধন্যবাদ। মুহূর্তটা কখনোই ভুলব না, বিশেষ করে মাঠে উপস্থিত সমর্থকদের প্রতিক্রিয়া।’

উয়েফার বর্ষসেরা গোলের পুরস্কার পাওয়ায় রোনালদোকে অভিনন্দন জানিয়েছে তার বর্তমান ক্লাব জুভেন্টাস, পর্তুগিজ তারকার সেই গোলটি বর্ষসেরা হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার পর জুভেন্টাসের টুইট, ‘অভিনন্দন ক্রিস্টিয়ানো! উয়েফা মৌসুম সেরা গোলটি তোমার।’ রোনালদো নিজেও এই পুরস্কার পেয়ে ভীষণ খুশি। বিশেষ করে গোলের পর জুভেন্টাস স্টেডিয়ামে দর্শকদের প্রতিক্রিয়া তিনি কখনোই ভুলবেন না। এ নিয়ে জুভেন্টাস তারকার টুইট, ‘যাঁরা ভোট দিয়েছেন তাঁদের সবাইকে ধন্যবাদ। মুহূর্তটা কখনো ভুলব না। বিশেষ করে স্টেডিয়ামে দর্শকদের প্রতিক্রিয়া। উয়েফার মৌসুম সেরা গোল। বিশেষ মুহূর্ত।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here