এ বছরের ডিসেম্বরে হবে জাতীয় সংসদ নির্বাচন। সে কারনেই বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ( বিপিএল) এর সূচীতে আসছে পরিবর্তন। নভেম্বর-ডিসেম্বরের বিপিএল পিছিয়ে যাচ্ছে আগামী বছরের জানুয়ারিতে। সেই পরিকল্পনার কথা আগেই জানিয়ে দিয়েছিল বিসিবি।

শনিবার ফ্রাঞ্চাইজিদের নিয়ে অনুষ্ঠিত সভায় আগামী বছরের ৫ জানুয়ারি থেকে বিপিএল আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে গভর্নিং কাউন্সিল। বিপিএল পিছিয়ে গেলেও প্লেয়ার্স ড্রাফট অনুষ্ঠানটা আগে-ভাগে সম্পন্ন করতে চায় গভর্নিং কাউন্সিল।

২৫ অক্টোবর প্লেয়ার্স ড্রাফটের দিন-ক্ষণ ধার্য করেছে গভর্নিং কাউন্সিল। গত মাসে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান আফজালুর রহমান সিনহার মৃত্যুতে শুন্য পদে শনিবার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে বিসিবি’র ডিসিপ্লিনারী কমিটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শেখ সোহেলকে।

বিপিএল’র পরবর্তী আসরে রিভিউ প্রথা প্রবর্তনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। প্রতি ইনিংসে ১টি রিভিউ থাকবে বলে জানিয়েছেন গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্য সচিব ডা.আই এইচ মল্লিক-‘ বিপিএলে এবার রিভিউ থাকবে। প্রতি ইনিংসে প্রতিটি দল একটি করে রিভিউ থাকবে।’ বিপিএলে আম্পায়ারিংয়ের মান নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় পরবর্তী আসরে প্রতি ম্যাচে ১ জন বিদেশী আম্পায়ার নিযুক্ত করা হবে বলেও জানিয়েছেন মল্লিক-‘ প্রতি ম্যাচ একজন করে বিদেশি আম্পায়ার থাকবে। ’

বিপিএলএ এবার প্রতিটি দল পছন্দের ৪ খেলোয়াড়  রেখে দিতে পারবে। এ মাসের মধ্যে সেই খেলোয়াড়দের তালিকা জমা দিতে হবে বলে শনিবার ফ্রাঞ্চাইজিদের জানিয়ে দেয়া হয়েছে। প্লেয়ার্স ড্রাফটের বাইরে থেকেও খেলোয়াড় নেয়ার সুযোগ থাকছে এবার। ড্রাফটের বাইরে থাকা বিদেশী ক্রিকেটারদের মধ্য থেকে ২ জনকে দলে নেয়ার সুযোগও রেখেছে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল-‘  ড্রাফটের বাইরে থেকে প্রতিটি দল দুজন করে খেলোয়াড় নিতে পারবে। বাকিদের ড্রাফট থেকে কিনতে হবে। গতবার বিপিএল খেলেছেন এমন বিদেশিদের এবারের ড্রাফটে থাকতে হবে। যারা গতবার ড্রাফটে ছিলেন না, তাদের মধ্য থেকে দুজন করে খেলোয়াড় ফ্রাঞ্চাইজিগুলো দলে নিতে পারবে।  প্রতিটি দলের যে পরিমাণ খেলোয়াড়ের প্রয়োজন হবে, সেটা পূরণ করার জন্য আনরেজিস্ট্রার্ড দুজন করে খেলোয়াড় নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here