বারবার শৃঙ্খলাভঙ্গের কারণে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে সাব্বির রহমানকে ৬ মাস নিষিদ্ধ করার সুপারিশ করেছে বিসিবির ডিসিপ্লিনারি কমিটি। আরেক ক্রিকেটার মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে ব্যক্তিগত ঝামেলার জন্য সতর্ক করা হয়েছে।

শনিবার দুই ক্রিকেটারের শুনানি শেষে এ তথ্য জানান বিসিবি পরিচালক ইসমাইল হায়দার মল্লিক।

সাব্বিরকে নিষিদ্ধের সুপারিশ বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের কাছে পাঠানো হবে শনিবারই। সেটি অনুমোদন হলেই শাস্তি শুরু হবে অতিসম্প্রতি ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে ৬ মাসের নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ করে ফেরা এ ব্যাটসম্যানের।

সাব্বিরকে নিষিদ্ধ করার ইঙ্গিত মিলছিল কিছুদিন থেকেই। বিসিবির দায়িত্বশীলদের কথায় উঠে আসছিল সাব্বিরের লাগামহীন অসদাচরণের বিষয়টিতে বোর্ডের বিব্রত হওয়ার কথা। বারবার শৃঙ্খলাভঙ্গের দরুণ বোর্ড কঠোর হতে যাচ্ছে, গত বৃহস্পতিবার মিরপুরে জরুরী সভা শেষে এমন ইঙ্গিত দিয়েছিলেন বিসিবি সভাপতিও। নাজমুল হাসান তখন জানান, এশিয়া কাপের দল থেকে সাব্বিরের বাদ পড়া শৃঙ্খলাভঙ্গের ফসল।

গত বছর খেলার মাঠেই এক দর্শককে পেটানোর দায়ে চলতি বছরের ১ জানুয়ারি সাব্বিরকে কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বিসিবি। এছাড়া ২০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়, সঙ্গে ছয় মাসের জন্য ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করা হয়।

গত ২ বছরে বেশ আরও কয়েকটি বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন সাব্বির। নারী ঘটিত ব্যাপারের পাশাপাশি ক্রিকেট মাঠে আরেক ক্রিকেটারের সঙ্গে হাতাহাতিতে জড়িয়েছিলেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ চলাকালীন ফেসবুকে এক ভক্তের সঙ্গে বিবাদে জড়ানো ও তাকে হুমকি দেয়ায় নতুন করে আলোচনায় আসেন।

অন্যদিকে মোসাদ্দেক পড়েছেন পারিবারিক ঝামেলায়। সম্প্রতি জাতীয় দলের এ ক্রিকেটারের নামে যৌতুকের মামলা করেছেন তার স্ত্রী। মোসাদ্দেক যদিও দাবি করেছেন, তিনি নিয়ম মেনেই স্ত্রীকে ডিভোর্স দিয়েছেন এবং আর্থিক ঝামেলা মিটিয়ে দেবেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here