টানা ১৮৬ কিলোমিটার সাঁতার কেটে বিশ্বরেকর্ড গড়তে শেরপুরের ভোগাই নদীতে ঝাঁপ দিলেন ৬৪ বছর বয়সী সাঁতারু মুক্তিযোদ্ধা ক্ষিতিন্দ্র চন্দ্র বৈশ্য।

সোমবার (৩ সেপ্টেম্বর) সকাল ৭টা ১০ মিনিটে গিনেজ বুকে নাম লেখাতে নালিতাবাড়ী শহরের ভোগাই নদীর ওপর নির্মিত সেতুর পশ্চিম প্রান্ত থেকে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে সাঁতার শুরু করেন তিনি।

এর আগে, সেখানে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দূরপাল্লার এ সাঁতার কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন নালিতাবাড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুর রহমান।

ভোগাই নদীর দুপাড়ে এ সময় শত শত দর্শনার্থী তাকে হাত নেড়ে স্বাগত জানান এবং নাম ধরে চিৎকার করে উৎসাহিত করতে থাকেন। মদন উপজেলা নাগরিক কমিটি ও নালিতাবাড়ী পৌরসভা এ সাঁতার অনুষ্ঠানে ক্ষিতিন্দ্র চন্দ্র বৈশ্যকে সার্বিক সহায়তা করছে।

সাঁতারু ক্ষিতিন্দ্র চন্দ্র বৈশ্য বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার এক নারী সাঁতারুর ১৭৭ কিলোমিটারের রেকর্ড ভঙ্গ করতে আমার এ সাঁতারে নামা। এর আগে আমি ১৬ ঘণ্টায় ১৪৬ কিলোমিটার সাঁতারে অংশগ্রহণ করে সফল হয়েছিলাম। এবার বিশ্বরেকর্ড গড়ে গিনেজ বুকে নাম লেখানোর উদ্দেশে আমি টানা ১৮৫ কিলোমিটার সাঁতার শুরু করছি।

সকলের প্রার্থনা ও আশীর্বাদ কামনা করে তিনি বলেন, আশা করি আমি এবারও সফল হতে পারব।

নালিতাবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুর রহমান জানান, নেত্রকোনা জেলার মদন উপজেলার বাসিন্দা প্রখ্যাত সাঁতারু মুক্তিযোদ্ধা ক্ষিতিন্দ্র চন্দ্র বৈশ্য ১৮৫ কিলোমিটার সাঁতার প্রদর্শনের মধ্য দিয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়ে গিনেজ বুকে নাম লেখাবেন বলে আশা করেছেন তারা।

নালিতাবাড়ীর ভোগাই নদী থেকে সাঁতার শুরু করে নেত্রকোনা জেলার কংশ ও মগড়া নদী হয়ে মদন উপজেলার দেওয়ান বাজার ঘাট পর্যন্ত ১৮৬ কিলোমিটার অতিক্রম করবেন ক্ষিতিন্দ্র। টানা ৬০ ঘণ্টা সাঁতরে আগামী ৫ সেপ্টেম্বর তিনি মদনের দেওয়ান বাজার ঘাটে পোঁছাবেন।

এর আগে তিনি ১৬ ঘণ্টায় ১৪৬ কিলোমিটার সাঁতারে অংশগ্রহণ করে সফল হয়েছিলেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন নালিতাবাড়ী পৌরসভার মেয়র আবু বক্কর সিদ্দিক, নেত্রকোনা জেলার মদন পৌরসভার সাবেক মেয়র মোদাচ্ছের হোসেন শফিক, নালিতাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউল হোসেন মাস্টার, বাঘবেড় ইউপি চেয়ারম্যান মো. আব্দুস সবুর, নেত্রকোনার মদন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস, মদন নাগরিক কমিটি ও নালিতাবাড়ী প্রেসক্লাবের নেতারা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here