মালয়েশিয়ায় চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে এখন পর্যন্ত ৩০ হাজার অবৈধ অভিবাসীকে আটক করা হয়েছে। মঙ্গলবার মালয়েশিয়ার অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক মুস্তাফার আলী বলেছেন, আটককৃতদের মধ্যে প্রায় সাত হাজার বাংলাদেশি রয়েছেন।

অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক মুস্তাফার বলেন, আটককৃত ব্যক্তিদের মধ্যে বাংলাদেশ ছাড়াও ইন্দোনেশিয়া, নেপাল, ভারত, ফিলিপিন্স, কম্বোডিয়া ও মিয়ানমারের নাগরিক রয়েছেন।

ডেইলি স্টারের বরাত দিয়ে এশিয়া নিউজ নেটওয়ার্কের খবরে বলা হয়েছে, চলতি বছরের ২৯ আগস্ট পর্যন্ত পাঁচ হাজার নয়শ ৫৯ জন বাংলাদেশিকে আটক করেছে মালয়েশিয়া কর্তৃপক্ষ। তবে গত কয়েকদিনে আরও এক হাজার বাংলাদেশিকে আটক করা হয়েছে বলে খবরে বলা হয়েছে।

অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক বলেন, চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ২৯ আগস্টের মধ্যে পাঁচ হাজার নয়শ ৫৯ জন বাংলাদেশিকে আটক করা হয়।

দেশটির কোটা কিনাবালু অঞ্চলে অবৈধ অধিবাসী আটক অভিযানের বরাত দিয়ে মুস্তাফার বলেন, অবৈধ অভিবাসীদের কাজ ও আশ্রয় দেয়ায় গত ৩ আগস্ট এক হাজারের বেশি নিয়োগদাতাকেও আটক করা হয়েছে।

মালয়েশিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যম ‘বার্নামা’য় দেয়া বিবৃতিতে তিনি বলেন, দেশজুড়ে দশ হাজারের বেশি অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এসময় প্রায় এক লাখ বিদেশি শ্রমিককে জিজ্ঞাসাবাদ করে অবৈধ শ্রমিকদের আটক করা হয়েছে।

এর আগে অভিবাসীদের আত্মসমর্পণের জন্য ২০১৪ সালে থ্রি প্লাস ওয়ান কর্মসূচি হাতে নেয় মালয়েশিয়া সরকার। ওই কর্মসূচির আওতায় নামমাত্র জরিমানা দিয়ে সাধারণ ক্ষমার মাধ্যমে দেশে ফেরত যাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছিল দেশটির কর্তৃপক্ষ। তবে গেলো ৩০ আগস্ট সাধারণ ক্ষমার সময়সীমা শেষ হয়।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here