দেশের চলচ্চিত্র রাজত্বপটে চিত্র পাল্টে দেওয়া নায়কের নাম সালমান শাহ। আজ (৬ সেপ্টেম্বর) তার চলে যাওয়ার দিন।

১৯৯৬ সালের এই দিনে রাজধানীর ইস্কাটনের নিজ ফ্ল্যাটে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায় তার লাশ। সে সময় তার বাবা প্রয়াত কমরউদ্দিন আহম্মদ চৌধুরী একটি অপমৃত্যু (ইউডি) মামলা দায়ের করেন।

ছেলের মৃত্যু অপমৃত্যু নয় বরং হত্যা করা হয়েছে- প্রশ্ন তুলে তিনি ঢাকার সিএমএম আদালতে একটি অভিযোগ করেন। পরে মামলা করেন। এখনও আইনি লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন মা নীলা চৌধুরী।

নন্দিত চিত্রনায়ক সালমান শাহ’র মৃত্যুর ২২ বছর পেরিয়েও রহস্যের জাল এখনও থেকে গেছে। আত্মহত্যা করেছিলেন, নাকি খুন হয়েছিলেন এই নায়ক- প্রশ্নের উত্তর আজও খুঁজে চলেছেন সালমান স্বজন-ভক্তরা।

৯০ দশকের শ্রেষ্ঠতম নায়ক সালমানের প্রকৃত নাম শাহরিয়ার চৌধুরী ইমন। এ অভিনেতা ২৭টি চলচ্চিত্র অভিনয় করেছেন। যার বেশিরভাগই ছিল তুমুল জনপ্রিয় ও ব্যবসাসফল। মাত্র তিন বছরের অভিনয় জীবনে এমন দর্শকপ্রিয়তা চলচ্চিত্র ইতিহাসে বিরল।

১৯৯৩ সালে তার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত ‌‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ মুক্তি পায়। এরপর থেকেই বাংলা চলচ্চিত্রে ভরসার প্রতিশব্দ হয়ে ওঠেন এ নায়ক।

তাঁর অভিনীত ছবিগুলো হলো- কেয়ামত থেকে কেয়ামত, তুমি আমার, অন্তরে অন্তরে, সুজন সখী, বিক্ষোভ, স্নেহ, প্রেমযুদ্ধ, কন্যাদান, দেনমোহর, স্বপ্নের ঠিকানা, আঞ্জুমান, মহামিলন, আশা ভালোবাসা, বিচার হবে, এই ঘর এই সংসার, প্রিয়জন, তোমাকে চাই, স্বপ্নের পৃথিবী, সত্যের মৃত্যু নেই, জীবন সংসার, মায়ের অধিকার, চাওয়া থেকে পাওয়া, প্রেম পিয়াসী, স্বপ্নের নায়ক, শুধু তুমি, আনন্দ অশ্রু,বুকের ভেতর আগুন।

এদিকে, সালমান শাহ’র মৃত্যুবার্ষিকী স্মরণে বিএফডিসি ও তার জন্মস্থান সিলেটে বিশেষ আয়োজন হচ্ছে। এরমধ্যে বিএফডিসিতে থাকছে দোয়া ও মাহফিল। এটি আয়োজন করছে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। পারিবারিকভাবে একই আয়োজন হবে সিলেটেও।

 

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here