উয়েফা নেশন্স লিগের অভিষেক আসরের উদ্বোধনী দিনে গতবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জার্মানির বিপক্ষে স্বস্তির ড্রয়ে মাঠ ছেড়েছে বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স। একের পর এক আক্রমণ সামলাতে কোণঠাসা হয়ে পড়া দিদিয়ে দেশমের দল গোলরক্ষক আলফুঁস আরিওলার অসাধারণ নৈপুণ্যে এই ম্যাচটি গোলশূন্য ড্র হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৬ সেপ্টেম্বর) রাতে বায়ার্ন মিউনিখের মাঠ আলিয়াঞ্জ অ্যারেনা অনুষ্ঠিত হয় উয়েফা নেশন্স লিগের অভিষেক আসরের উদ্বোধনী ম্যাচটি।

এদিন অবশ্য ম্যাচের শুরু থেকেই বল নিয়ে দাপটে ছিল জোয়াকিম লোর শিষ্যরা। একের পর এক আক্রমণ সামলাতে কোণঠাসা হয়ে পড়া দিদিয়ে দেশমের দল গোলরক্ষক আলফুঁস আরিওলার অসাধারণ নৈপুণ্যে এই ম্যাচটি গোলশূন্য ড্র হয়েছে।

ম্যাচের তৃতীয় মিনিটেই আক্রমণে ওঠে জার্মানি। কর্নারের বিনিময়ে নিজেদের রক্ষা করে ফ্রান্সের রক্ষণ। ম্যাচের ১১তম মিনিটে প্রথম আক্রমণে ওঠে ফ্রান্স। বোয়েটাংয়ের ফাউলের ফলে পাওয়া গ্রিজমানের ফ্রি-কিক সহজে ক্লিয়ার করে জার্মান রক্ষণ। ১৯তম মিনিটে গোলের ভালো সুযোগ পান জার্মান স্ট্রাইকার ওয়ের্নার। তাঁর শট আটকে দেন ফরাসি গোলরক্ষক।

এরপর পুরোটা সময় বল দখল নিয়ে ফ্রান্সের রক্ষণে আক্রমণ চালাতে থাকে জার্মানি। ৩৪তম মিনিটে ক্রুসের দুর্দান্ত ক্রস থেকে গোলের সুযোগ হাতছাড়া করেন হামেলস। পরের মিনিটে কর্নার কিক থেকে কেউ মাথা ছোঁয়ালেই গোলের দেখা পেত জার্মানি। ৩৬তম মিনিটে ফ্রান্স একবার আক্রমণ করেছিল। তবে সেই যাত্রায় রক্ষা পায় সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

দ্বিতীয়ার্ধের একবার আক্রমণ চালায় অঁতোয়ান গ্রিজমান। ৬৪তম মিনিটে সেটা প্রতিহত করেন মানুয়েল নয়্যার। পরের মিনিটে মার্কো রয়েসের ডি-বক্সের ঠিক বাইরে থেকে নেওয়া শট ঠেকিয়ে ফ্রান্সের ত্রাতা গোলরক্ষক আরিওলা।

খানিক পর একের পর এক আক্রমণে অতিথিদের কোণঠাসা করে ফেলে জার্মানি। টানা কয়েক মিনিটে দারুণ কয়েকটি সুযোগও তৈরি করে তারা; কিন্তু তাদের পথে বাধা হয়ে দাঁড়ান আরিওলা। পলে গোলশূন্য ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে দুই দলের খেলোয়াড়রা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here