আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টি ৩০০ আসনেই প্রার্থী দেবে বলে জানিয়েছেন দলটির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। এজন্য নেতাকর্মীদের প্রস্তুতি নেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি।

এরশাদ বলেন, আগে আমাদের প্রার্থী দিতে বাধা ছিল। এখন আর কোনো বাধা নেই। ক্ষমতায় যাওয়ার পথও সুগম হয়ে গেছে।’

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় যাওয়ার শক্তি অর্জন করেছে। কারো গৃহপালিত বিরোধীদল আর থাকবে না।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ও বিএনপির হাতে রক্তের দাগ আছে। আমার হাতে নেই।

শনিবার (৮ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটি আয়োজিত এক যৌথ সভায় তিনি এ সব কথা বলেন।

আগামী ৬ অক্টোবর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের মহাসমাবেশ থেকে ঘোষণা দেব আগামী নির্বাচনে জাতীয় পার্টির অবস্থান কেমন হবে? এখন থেকেই নির্বাচনের জন্য সবাইকে প্রস্তুত হতে হবে।

তিনি বলেন, ‘পৃথিবীর কোনো রাজনীতিবিদ আমার মত নির্যাতনের শিকার হননি। তারপরও মাথানত করিনি। আমার একটাই লক্ষ্য, ক্ষমতায় যাওয়া। আমরা ক্ষমতায় যাওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছি। এর থেকে পিছিয়ে যাব না। কারও লেজুড়ভিত্তিক ও গৃহপালিত বিরোধীদলও হব না।’

অনুষ্ঠানে জাতীয় পার্টির কো চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ বলেন, ‘আমাদের এবারের সংগ্রাম ক্ষমতায় যাওয়ার সংগ্রাম। জনগণের ভাগ্য পরিবর্তনের সংগ্রাম।’

তিনি আরও বলেন, ‘পদ্মা সেতুর পরিকল্পনা এবং যমুনা সেতু, বুড়িগঙ্গা সেতু নির্মাণ জাতীয় পার্টির শাসনামলেই হয়েছে। আমাদের আমলেই নতুন রাস্তাঘাটসহ সারাদেশে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। আওয়ামী লীগ ও বিএনপির আমলেও এতো উন্নয়ন আর হয়নি। এবার জনগণকে বোঝাতে পারলেই আমরা লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারব।’

অনুষ্ঠানে জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান জি এম কাদের, মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমীন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিস্টার অনিসুল ইসলাম মাহমুদসহ সারাদেশ থেকে আসা নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here