রাশিয়া বিশ্বকাপে ভরাডুবির পর কোচিং স্টাফে রদবদল হয় আর্জেন্টিনার। ভারপ্রাপ্ত হিসেবে হাল ধরেন দেশটির সাবেক খেলোয়াড় লিওনেল স্কালোনি। ভবিষ্যৎ চিন্তা করেই দল থেকে দূরে রাখেন লিওনেল মেসিকে। আকাশী-সাদাদের সবচেয়ে বড় এই তারকা ছাড়াও সার্জিও আগুয়েরো, অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া, গঞ্জালো হিগুয়াইনদের মতো বড় নামগুলোকে বাদ দেন স্কোয়াড থেকে।

দুইবারের বিশ্বসেরা দলটিতে সুযোগ মেলে এক ঝাঁক তরুণের। নতুন এই দল নিয়ে মাঠে নেমেই বাজিমাত। আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে গুয়েতমালার বিপক্ষে জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনা। ভারপ্রাপ্ত কোচ স্কালোনির অধীনে প্রথমবারের মতো খেলতে নেমেই ৩-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে আলবিসেলেস্তেরা।

আজ শনিবার বাংলাদেশ সময় সকাল ৯টায় যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেস মেমোরিয়াল কলোসিয়ামে মুখোমুখি হয় দুই দল। আর্জান্টাইনদের হয়ে একটি করে গোল করেছেন গঞ্জালো মার্টিনেজ, গিওভানি লো সেলসো ও গিওভান্নি সিমিওনে।

ম্যাচের শুরু থেকেই তুলনামূলক দুর্বল প্রতিপক্ষের বিপক্ষে বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে থাকে লাতিন দেশটি।

শনিবার ম্যাচের শুরু থেকেই গুয়াতেমালার রক্ষণে চাপ প্রয়োগ অব্যহত রাখে আর্জেন্টিনা। সেই সুযোগে ম্যাচের ২৭তম মিনিটে আকাশি-নীল জার্সিধারীদের পেনাল্টি থেকে এগিয়ে দেন গঞ্জালো নিকোলাস মার্টিনেজ। লো চেলসো বাড়ানো বল পল গুয়াতেমালার ডি-বক্সে হাতে লাগে ভাসকুয়েজের। যে কারণে রেফারি স্পট কিকের বাঁশি দেন। আর সেই সুযোগটি কোনভাবেই হাতছাড়া করেননি মার্টিনেজ।

এদিকে ম্যাচের ৩৪তম মিনিটে দুর্দান্ত গোল করে আর্জেন্টিনাকে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে দেন লো চেলসো। কর্ণার থেকে ভেসে আসা বল গুয়াতেমালার ডি-বক্সের মাঝখানে দাঁড়িয়ে থাকা চেলসো চোখ জুড়ানো ভলিতে জালে জড়িয়ে সমর্থকদের আনন্দে মাতান। সেই রেশ থাকতে থাকতে আকাশি-নীল জার্সিধারীদের আনন্দের মাত্রা আরও বাড়িয়ে দেন সিমিওনে। মাঝমাঠ থেকে বল পেয়ে প্লাসিওস বাড়িয়ে দেন সিমিওনেকে। এরপর সেই বল নিজ আয়ত্তে নিয়ে দারুণ দক্ষতায় প্রতিপক্ষের এক-দুইজন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে বেশ সহজেই জালের দেখা পেয়ে যান এ ফরোয়ার্ড। তাতে ৩-০ লিড নিয়ে বিরতিতে যায় লিওনেল স্কালোনির শিষ্যরা।

বিরতির পর ম্যাচের ৪৮তম মিনিটে ব্যবধান কমানোর দারুণ সুযোগ পেয়েছিল গুয়াতেমালা। কিন্তু ভার্গাসের ব্যর্থতায় সেই সুযোগ হাতছাড়া হয় দলটির।

এদিকে ম্যাচের ৫৬তম মিনিটে মার্টিনেজকে তুলে ফ্রানকো ভাজকুয়েজকে আর্জেন্টিনার জার্সিতে প্রথমবারের মতো মাঠার নামার সুযোগ করে দেন কোচ স্কালোনি। কিন্তু অভিষেক ম্যাচে তেমন কিছু করে দেখাতে পারেননি তিনি। তারপরও তার দল জিতেছে ৩-০ গোলে। এটাই বা কম কি?

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here