আওয়ামী লীগের উত্তরবঙ্গ সফরে জনসমর্থনই প্রমাণ করে আগামী নির্বাচনে বিএনপির পরাজয়ের আশঙ্কা আরো বেড়েছে।

রোববার সকালে নীলফামারীর সৈয়দপুর বিমানবন্দরে সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে বিএনপি নির্বাচন থেকে পালানোর জন্য এখন দেশে সহিংসতা সৃষ্টির চেষ্টা করছে। আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরীণ কোন্দল নিরসনে নেতা-কর্মীদের সতর্ক করা হয়েছে বলেও জানান ওবায়দুল কাদের।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘উন্নয়নের পক্ষে পথে পথে চলছে অকল্পনীয় ও অবিশ্বাস্য গণযোগাযোগ। নির্বাচন সামনে রেখে আমরা আমাদের উন্নয়ন প্রচার করবো। আমরা আমাদের পার্টিকে উদ্বুদ্ধ করবো, সংগঠিত করবো। এটাই স্বাভাবিক। এছাড়া পার্টির যেসব আন্তঃকলহ আছে, সেগুলো নিরসন করার জন্য আমাদের প্রয়াস ছিল। আমাদের  নেতাদের ডেকে সতর্ক করে দেয়া হয়েছে।’

সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘১০ বছর ধরে বিএনপি আন্দোলন করতে পারেনি। দলটির নেত্রী খালেদা জিয়া কারাগারের বাইরে থাকার সময়ও জনগণ তার ডাকে সাড়া দেয়নি। এখন নির্বাচন থেকে পালানোর জন্য বিএনপির নেতাকর্মীরা অস্থিরতা সৃষ্টির চেষ্টা করছে। আমাদের কাছে খবর আছে, দেশে-বিদেশে ২০১৪ সালের মতো কিভাবে সহিংসতা করা যায়, তা নিয়ে ষড়যন্ত্র চলছে। তবে এসব করে লাভ হবে না। আমরা জনগণকে নিয়ে তা প্রতিহত করবো।’

তিনি আরো বলেন, ‘উত্তরবঙ্গ সফরে জনসমর্থনই আবারও তাদের বুঝিয়ে দেয়ার জন্য যথেষ্ট যে জনগণের ভোটে বিএনপি ও তাদের দোসরদের জয় লাভ করা আর তাদের হাতে নেই। তাদের হেরে যাওয়ার আশঙ্কাটা আরো প্রবল হয়ে

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here