ভারতীয় সিনেমায় একসময় আভিজাত্যের ছোঁয়া এনে দিয়েছিলো সুইজারল্যান্ড। ছবিকে আকর্ষনীয় করতে শুটিং করা হতো সুইজারল্যান্ডে। শুরুটা হয়েছিল সেই ১৯৬৪ সালে। রাজ কাপুরের ‘সঙ্গম’ হল প্রথম ভারতীয় ছবি, যার শুটিং হয়েছিল সুইজারল্যান্ডে। এরপর একে একে সুইস আল্পসকে আপন করেছে বলিউডের তাবড় পরিচালকেরা।

পরিচালকদের মধ্যে যশ চোপড়া সবচেয়ে বেশি শুটিং করেছেন সুইজারল্যান্ডে। যশ চোপড়ার ছবি মানে সেখানে সুইজারল্যান্ডের দৃশ্য থাকবেই। যে কারণে বলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির প্রতিনিধি হিসাবে যশ চোপড়ার মূর্তি বসেছে সুইজারল্যান্ডের ইন্টারলাকেনে। তার নামে একটি ট্রেনও রয়েছে সে দেশে।

এবার শ্রীদেবীর পালা। সুইজারল্যান্ডে যশ চোপড়ার রোম্যান্টিক ফিল্মের দৃশ্যে বার বার এসেছেন শ্রীদেবী। শুটিং করতে বলিউডও ছুটে গিয়েছে সুইস আল্পসে। তাতেই নাকি বাড়বাড়ন্ত হয়েছে সে দেশের পর্যটন শিল্পে। সে কথা মাথায় রেখেই এ বার শ্রীদেবী মূর্তি বসানোর পরিকল্পনা নিয়েছে সুইজারল্যান্ডের পর্যটন দফতর।

সেখানকার পর্যটন দফতরের এক শীর্ষ কর্তা জানান, ‘ভারতের সঙ্গে সুইজারল্যান্ডের যোগসূত্রকে তুলে ধরতে অনেক আগেই ইন্টারলাকেনে যশ চোপড়ার মূর্তি বসিয়েছে সুইস সরকার। এবার শ্রীদেবীর মূর্তি বসানোর কথা চিন্তা-ভাবনা করা হচ্ছে। সুইজারল্যান্ডের পর্যটন শিল্পে তার অবদানের কথা মাথায় রেখে শ্রীদেবীকে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করতে এই প্রস্তাব করা হয়েছে। তবে পুরো বিষয়টি এখনো পরিকল্পনার স্তরে রয়েছে।’

যশ চোপড়াই শুধু নন, আল্পসের গায়ে এর আগেও শুটিং করেছে বলিউড।  সে সব ফিল্মি দৃশ্যে আল্পসকে দেখে সেখানে ঢল নেমেছে ভারতীয় পর্যটকদের। সুইজারল্যান্ডের পর্যটন দফতর মনে করে বলিউডের ছবিতে বারবার সুইজারল্যান্ডের দৃশ্য উঠে আসায় সেখানে পর্যটকদের ঢল নেমেছে। ১৯৯২-তে ২৮,৮৩৪ জন ভারতীয় সে দেশে গিয়েছিল। কিন্তু ২০১৭-তে তা বেড়ে দাঁড়ায় ৩২৬, ৪৫৪।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here