আসন্ন এশিয়া কাপকে পাখির চোখে করে এবার বেশ শক্তভাবেই নিজেদেরকে প্রস্তুত করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। তবে সেই অনুশীলনের শুরু থেকে শেষ অব্ধি পাওয়া যায়নি দলের অন্যতম ভরসার প্রতীক অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে। আর এতেই সাকিবের উপর কিছুটা বিরক্ত বিসিবি। যা দলের জন্য ইতিবাচক বার্তা দেই না বলে জানিয়েছেন বোর্ডের মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস।

কথা পিঠে কথা জমা হচ্ছে ঢের। বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের আঙুলের চোট নিয়ে জল ঘোলাটা নেহাত কম হচ্ছে না। কিছুদিন আগেই বাংলাদেশের এক ইংরেজি দৈনিকের সাথে একান্ত সাক্ষাৎকারে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার জানিয়েছিলেন বর্তমানে ম্যাচ খেলার মত যথেষ্ট ফিট নন তিনি। সেটাই কিনা একেবারে পছন্দ হয়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের। সাকিবের এমন কথাতে তাই বেশ বিব্রত হয়েছে বোর্ড।

এদিকে উইন্ডিজ সিরিজ শেষে সাকিব গিয়েছিলেন সৌদি আরবে পবিত্র হজ্ব পালনে। সেখান থেকে ঢাকা হয়ে আবার যুক্তরাষ্ট্রে পরিবারের কাছে গেছেন টাইগার এই অলরাউন্ডার। ওখান থেকেই সরাসরি আরব আমিরাতে যোগ দেবেন দলের সাথে এশিয়া কাপের মিশনে। ইনজুরির বাগড়ার সাথে অনুশীলনের বাইরে আছেন মাস খানেকেরও বেশি সময় ধরে। এজ্যনই তাকে ঘিরে তৈরি হয়েছে নানান সংশয়। খেলবেন কি খেলবেন না তা এখনো নিশ্চিত নয়।

কিছুদিন আগেই গণমাধ্যমে নিজেকে আনফিট দাবি করলেও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে দিয়েছেন ভিন্ন ব্যাখা। সাকিবের এমন দ্বিমুখী আচরণ নিয়ে তাই কিছুটা বিরক্ত বিসিবি।

এই প্রসঙ্গে বোর্ডের মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস বলেন, ‘আমরা তার কাছে জানতে চেয়েছিলাম আসল ব্যাপারটা কি। সে বলেছে আমার ইনজুরি নিয়ে কথা (গণমাধ্যমে) বলি নাই। যেহেতু আমি অনেকদিন প্যাকটিসে ছিলাম না, সেহেতু আমার ফিজিক্যাল ফিটনেসটা এমুহূর্তে নেই। তবে সাকিব আশা করছে সে দুবাই যেয়ে কয়েকটা সেশন অনুশীলন করলে সব ঠিক হয়ে যাবে।’

সাকিবের অনুশীলন অনীহা দলের জন্য ইতিবাচক বার্তা দিচ্ছে না জানিয়ে জালাল ইউনুস আরো বলেন, ‘টিম স্পিডের জন্য তার উচিৎ দলের সাথে একসাথে অনুশীলন করা। স্পেশালই কোন ট্যুরে যাওয়ার আগে। তাহলে টিম মোরালটা স্ট্রং থাকে, টিম স্পিডটাও ভালো থাকে।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here