আম্পায়ারকে ‘চোর’ ও ‘মিথ্যুক’ বলে ইউএস ওপেনের কোড লঙ্ঘন করেছেন সেরেনা উইলিয়ামস। এজন্য জরিমানার কবলে পড়েছেন তিনি। তাকে গুনতে হচ্ছে ১৭ হাজার ডলার। এমনটাই জানিয়েছে, ইউনাইটেড স্টেটস টেনিস অ্যাসোসিয়েশন (ইউএসটিএ)।

ইউএস ওপেনের শিরোপা নিরার্ধরী ম্যাচ চলাকালিন রোববার চেয়ার আম্পায়ার কার্লোস র‍্যামোসকে লক্ষ্য করে কোচ প্যাট্রিক মৌরেতাগলৌ ইশারার মাধ্যমে সেরেনাকে পরামর্শ দেন। তখন আম্পায়ার, সেরেনাকে বলেন এটা ‘প্রতারণা’। তীব্রভাবে এর বিরোধিতা করেন তখন আম্পায়ারকে তিনি বলেন, জেতার জন্য জীবনে কখনো তাকে প্রতারণার সাহায্য নিতে হয়নি। তিনি মেয়ের মা, তিনি জানেন তার মেয়ের জন্য কোনটা ঠিক আর কোনটা ভুল।

শনিবার ম্যাচ চলাকালিন এক পর্যায়ে নিজের ওপর বিরক্ত হয়ে কোর্টেই র‌্যাকেট ভেঙে ফেলেন সেরেনা। সে সময় তাকে শাস্তি হিসেবে আম্পায়ার এক পয়েন্ট পেনাল্টি দেন ওসাকাকে। ক্ষোভে ফেটে পড়ে সেরেনা। তখন আম্পায়ারকে যুক্তরাষ্ট্রের এ টেনিস তারকা বলেন, ‘আপনি চোর, আপনি আমার পয়েন্ট চুরি করেছেন।’ সেরেনার আচরণে ক্ষুব্ধ হয়ে এক পর্যায়ে আম্পায়ার একটি গেম ওসাকাকে দিয়ে দেন। তাতে আরও ভেঙে পড়ে সেরেনা। তখন তিনি বলেন, মহিলা বলেই আমাকে এই শাস্তি পেতে হল।’

ইউএস ওপেনের রানার্সআপ হওয়ায় ১.৮৫ মিলিয়ন ডলার পেয়েছেন সেরেনা। সেখান থেকে জরিমানার অর্থ কেটে নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে ইউএসটিএ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here