সৌদি রাজা সালমান বিন আবদুল আজিজের ছোট ভাই প্রিন্স আহমাদ বিন আবদুল আজিজ আর কখনো দেশে না ফেরার কথা বিবেচনা করছেন বলে জানা গেছে। সম্প্রতি ইংল্যান্ডের রাজধানী লন্ডনে তার বাড়ির সামনে জড়ো হওয়া ইয়েমেন ও বাহরাইনের বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশ্যে বক্তৃতা দেয়ার সময় প্রিন্স আহমাদ বড় ভাই রাজা সালমান ও তার ছেলে যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমানের সমালোচনা করেন।

বিক্ষেভকারীরা সৌদি রাজপরিবারের ধ্বংস কামনা করে নানা স্লোগান দিলে প্রিন্স আহমাদ বলেন, ইয়েমেন ও বাহরাইন পরিস্থিতির জন্য রাজা সালমান ও তার ছেলে মুহাম্মাদ দায়ী; এজন্য পুরো রাজপরিবার দায়ী নয়। এ নিয়ে ছড়িয়ে পড়া এক ভিডিওতে প্রিন্স আহমাদকে দেখা যাচ্ছে যেখানে তিনি বলছেন, “আপনারা কেন আলে সৌদ পরিবার নিয়ে এসব বলছেন? এর সঙ্গে পুরো সৌদি পরিবারের সম্পর্ক কী? এসবের সঙ্গে সুনির্দিষ্ট কয়েকজন জড়িত, আপনারা অন্য কাউকে জড়িত করবেন না।”

যুদ্ধের সঙ্গে কারা জড়িত তা পরিষ্কার করার জন্য চাপ সৃষ্টি করলে তিনি বলেন, “রাজা ও যুবরাজ এবং দেশের অন্য কয়েক ব্যক্তি।” রাজপরিবারের ভাবমর্যাদা রক্ষার জন্য রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা সৌদি প্রেস এজেন্সি বা এসপিএ প্রিন্স আহমাদের ওই বক্তব্যের ভিন্ন ব্যাখ্যা দেয়ার চেষ্টা করে। পরে এসপিএ’র ব্যাখ্যাকে ভুয়া বলে উল্লেখ করেছে মিডিলইস্ট আই। এছাড়া, প্রিন্স আহমাদ তার বক্তব্যে অটল রয়েছেন বলেও মিডিলইস্ট আই জানিয়েছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here