সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত-র সঙ্গে নতুন ছবি। অন্যদিকে, শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে ‘দ্বিখণ্ডি’-তে অভিনয়। আবার ‘হইচই’ সিরিজের ‘চরিত্রহীন’। এ সবগুলোতেই অভিনয় করেছেন সায়নী ঘোষ।  অনেকেই বলছেন এ ওয়েব সিরিজে বাড়াবাড়ি রকমের যৌনতা রয়েছে। কিন্তু সম্প্রতি বিষয়টি নিয়ে খোলামেলা কথা বলেছেন সায়নী।

তিনি বলেন,  এটা শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত। পরিচালক  দেবালয় ভট্টাচার্য খুব যতœ করে কাজটা করেছে। বডি এক্সপোজারের বিষয় যদি গল্পের প্রয়োজনেও আসে তবে সেটা খুব এসথেটিকালি শুট হয়েছে। আমাদের ডিওপি ইন্দ্রনাথও চমৎকার কাজ করেছেন। দর্শক চরিত্রহীন  দেখলেই বুঝতে পারবেন, ‘চরিত্রহীন’ কিন্তু কোনও সেক্স ওয়েব সিরিজ নয়। অযথা যৌনতা নিয়ে বাড়াবাড়ি করা হয়নি। কিন্তু ইদানীং ওয়েব সিরিজ মানেই যৌনতার হাতছানি। মানেন?

উত্তরে সায়নী বলেন, আসলে ওয়েবে  তো কোনও সেন্সর বসেনি। তাই অনেক ক্ষেত্রেই ইচ্ছেমতো বিষয় নিয়ে এক্সপোজার হয়। কিন্তু একটু লক্ষ্য করলে বুঝবেন, হিন্দি বা ইংরেজি ওয়েব সিরিজ যে দিকে গিয়েছে সেখানে বাংলা থ্যাঙ্কফুলি কোথাও পিছিয়ে। কারণ আমরা অকারণ যৌনতা দেখানোর জন্য পাগল নই। আমরা কিছু বিষয়ে থেমে যাই। এই থেমে যাওয়া আমার মতে ভাল…।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here