চলতি বছরের শুরুতে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারির পর প্রথম টেস্ট দল ঘোষণা করেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। পাকিস্তানের বিপক্ষে আগামী মাসে সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিতব্য দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে পরিবর্র্তনের ধারাবাহিকতায় অস্ট্রেলিয়া দলে ডাক পেয়েছেন পাঁচজন নতুন ক্রিকেটার। সেই সাথে টেস্ট দল থেকে বাদ পড়েছেন ব্যাটিং অলরাউন্ডার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল।

সাবেক অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার ও ক্যামেরুন ব্যানক্রফটের বল টেম্পরিং ঘটনায় অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটের ইমেজ বহুলাংশেই নষ্ট হয়েছে, যার থেকে এখনো তারা বেরিয়ে আসতে পারেনি। পুরো ঘটনায় বিশ্ব ক্রিকেটে অস্ট্রেলিয়ানদের নিয়ে যে সমালোচনা হয়েছে তা দেশটির ক্রিকেট ইতিহাসে এক কলঙ্কজনক অধ্যায়ের জন্ম দিয়েছে। তবে দীর্ঘদিন পরে প্রথম টেস্ট দল ঘোষণা করতে গিয়ে অস্ট্রেলিয়ান নির্বাচকরা যেন নতুনদের ওপরই আস্থা রাখার ইঙ্গিত দিলেন। এই টেস্টে ইনজুরির কারণে খেলতে পারছেন না না দুই ফাস্ট বোলার জোস হ্যাজেলউড ও প্যাট কামিন্স। যে কারণে সাম্প্রতিক সময়ে সম্ভবত সবচেয়ে দুর্বল টেস্ট স্কোয়াড নিয়েই পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামতে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া।

প্রথমবারের মতো টেস্ট দলে ডাক পাওয়া পাঁচ নতুন খেলোয়াড় হলেন কুইন্সল্যান্ডের তিন খেলোয়াড় মাইকেল নেসার, ব্রেন্ডান ডগেট ও মারনুস লাবুসচাগনে, দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ান ট্রেভিস হেড ও ভিক্টোরিয়ার অ্যারন ফিঞ্চ।

এ সম্পর্কে জাতীয় নির্বাচক ট্রেভর হনস বলেছেন, ‘এবারের টেস্ট দলটিতে ব্যাপক পরিবর্তন আনা হয়েছে। দলের বেশ কয়েকজন তারকা খেলোয়াড়ের অনুপস্থিতিই এর কারণ। আমরা বিশ্বাস করি নতুন দলটি চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সমর্থ হবে এবং পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে তারা নিজেদের প্রমাণ করতে পারবে। দলটিতে অভিজ্ঞতা ও তারুণ্যের সংমিশ্রণ রয়েছে। এখানে যেমন টেস্ট ও প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিজ্ঞদের জায়গা দেয়া হয়েছে ঠিক সেভাবেই যারা টেস্ট অঙ্গনে নিজেদের আত্মবিশ্বাস প্রমাণে প্রস্তুত তাদের ডাকা হয়েছে।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here