জল্পনা কল্পনা শেষে নতুন তিনটি আইফোন নিয়ে আসার ঘোষণা দিয়েছে অ্যাপল। অ্যাপলের নতুন তিন মডেল হলো- আইফোন টেনএস, আইফোন টেনএস ম্যাক্স এবং আইফোন টেনআর।

আইফোন টেনএস

এই ফোনটি পানিরোধক। এর ওএলইডি ডিসপ্লেটির আয়তন ৫ দশমিক ৮ ইঞ্চি। অর্থাৎ গত বছর উন্মোচিত হওয়া আইফোন টেনের সমান। দ্রুত কাজের জন্য এতে ব্যবহার করা হয়েছে এ১২ বায়োনিক প্রসেসর। এর স্টোরেজ বৃদ্ধি করা হয়েছে ৫১২ গিগাবাইট পর্যন্ত। আইফোন টেনের তুলনায় ৩০ মিনিট বেশি চার্জ থাকবে এটিতে।

এর ডুয়াল ক্যামেরা সিস্টেমেও পরিবর্তন নিয়ে আসা হয়েছে। ফলে এটি আরও প্রানবন্ত ছবি তুলতে সক্ষম। সেই সঙ্গে এর সামনের ক্যামেরা আরও উন্নত করা হয়েছে ফলে এটি আরও কম সময়ে ব্যবহারকারীর মুখমণ্ডল সনাক্ত করতে পারবে এবং আনলক হবে । আইফোন টেনএসের পেছনে রয়েছে ১২+১২ মেগাপিক্সলের ডুয়াল ক্যামেরা এবং সামনে ৭ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা।

এই ফোনটির মূল্য শুরু ৯৯৯ ডলার থেকে।

আইফোন টেনএস ম্যাক্স

৬ দশমিক ৫ ইঞ্চি ওএলইডি ডিসপ্লের এই স্মার্টফোনটি আইফোন পরিবারে সবচেয়ে বড় ডিসপ্লের ফোন। এর ব্যাটারিও অন্যান্য সব আইফোনের চেয়ে বেশি । এটিতেও আইফোন টেনএস এর মতো ব্যবহার করা হয়েছে এ১২ বায়োনিক প্রসেসর। এই স্মার্টফোনটির মূল্য শুরু ১ হাজার ৯৯ ডলার থেকে।

আইফোন টেনআর

অ্যালুমেনিয়াম বডির এই ফোনটির ডিসপ্লে ৬ দশমিক ১ ইঞ্চি। এতে ব্যবহার করা হয়েছে এজ টু এজ এলসিডি ডিসপ্লে। এই ফোনটিতে আইফোন এইট প্লাস থেকে দেড় ঘণ্টা বেশি চার্জ থাকে। এই স্মার্টফোনটির মূল্য শুরু ৭৪৯ ডলার থেকে। ১২ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে আইফোন টেনআরে।

নতুন আইফোনে ব্যবহার করা যাবে দুইটি নম্বর

ডুয়েল সিমের যুগে প্রবেশ করেছে আইফোন। অ্যাপলের ইভেন্টে এ ঘোষণা দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে জানানো হয়, নতুন আইফোনে দুইটি নম্বর ব্যবহার করা যাবে। এর মধ্যে একটিতে সিম এবং অপরটিতে ই-সিম।

কবে পাওয়া যাবে

১৯ অক্টোবর থেকে আইফোন টেনআর প্রিঅর্ডার করা যাবে। ২৬ অক্টোবর থেকে বাজারে পাওয়া যাবে এটি। টেনএস এবং টেনএস ম্যাক্স পাওয়া যাবে ২১ সেপ্টেম্বর থেকে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here