ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড় ফ্লোরেন্সের আঘাতে লন্ডভন্ড হয়ে গেছে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যারোলিনা অঙ্গরাজ্যের উপকূলীয় অঞ্চল। শুক্রবার ওই এলাকার ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া এই ঝড়ে মা ও শিশুসহ পাঁচজনের নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এর প্রভাবে নদীর পানি বেড়ে বন্যার আশঙ্কা করছেন মার্কিন কর্মকর্তারা। অনেক এলাকায় অব্যাহত বর্ষণেরও খবর পাওয়া গেছে।

শুক্রবার ঝড়ের সময় নর্থ ক্যারোলিনার উইলমিংটন এলাকায় এক বাড়ির ওপর বিশাল একটি গাছ ভেঙে পড়ে। এতে ঘটনাস্থলে মারা যায় এক মা ও শিশু। এ ঘটনায় আহত হন শিশুটির বাবা। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ওই রাজ্যের পেনডের কাউন্টিতে ঝড়ের সময় হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা গেছেন এক নারী। কিন্তু ধ্বংসস্তূপ সরিয়ে এখন তার মরদেহ উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। এছাড়া লেনয়র কাউন্টিতে মারা গেছে আরো দুই ব্যক্তি।

ঘূর্ণিঝড় ফ্লোরেন্সের আঘাতে ভেঙে পড়েছে প্রচুর ঘরবাড়ি ও গাছপালা। ঝড়ের কারণে ১০ হাজারের বেশি ঘরবাড়ির বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

ঘূর্ণিঝড় ফ্লোরেন্সে আঘাত হানার আগেই ভার্জিনিয়া, উত্তর ও দক্ষিণ ক্যারোলিনা থেকে ১৭ লাখেরও বেশি মানুষকে সরে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার রাত থেকেই হাজার হাজার মানুষ অস্থায়ী শিবিরে আশ্রয় নিয়েছেন।

ঘূর্ণিঝড় থেমে গেলেও দুর্যেোগপূর্ণ আবহাওয়া এত দ্রুত কাটবে না বলে জানিয়েছে স্থানীয় আবহাওয়া দপ্তর। আবহাওয়া দপ্তরের কর্মকর্তারা উপকূলীয় এলাকাগুলোতে তীব্র ঝড়ো হাওয়ার পাশাপাশি অব্যাহত বর্ষণ ও বন্যার আশঙ্কা করছেন বলে জানিয়েছে বিবিসি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here